September 28, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Thursday, September 1st, 2022, 8:08 pm

শ্রীলঙ্কাকে ২৯০ কোটি ডলার ঋণ দিতে রাজি আইএমএফ

অনলাইন ডেস্ক :

এই ঋণ পাওয়ার জন্য শ্রীলঙ্কার সরকারি ব্যাংকগুলোকে অর্থ পরিশোধের নিশ্চয়তা দিতে হবে, সরকারকে পূরণ করতে হবে কিছু শর্ত। অর্থনৈতিক সঙ্কট মোকাবিলায় শ্রীলঙ্কাকে প্রাথমিকভাবে ২৯০ কোটি ডলার ঋণ দিতে সম্মত হয়েছে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল-আইএমএফ। বৃহস্পতিবার (১লা সেপ্টেম্বর) আন্তর্জাতিক এ ঋণদাতা সংস্থা এক বিবৃতিতে বলেছে, “এই ঋণ কর্মসূচির উদ্দেশ্য শ্রীলঙ্কার সামষ্টিক অর্থনৈতিক স্থিতিশীলতা এবং ঋণ পরিশোধের সক্ষমতা পুনরুদ্ধার করা।”বর্ধিত ঋণ সুবিধার অধীনে আইএমএফ চার বছর মেয়াদে এই ঋণ দিচ্ছে বলে রয়টার্স জানিয়েছে। আইএমএফের ব্যবস্থাপনা ও নির্বাহী বোর্ডের অনুমোদন সাপেক্ষে এবং শ্রীলঙ্কার শর্ত পূরণের ভিত্তিতে এই চুক্তি চূড়ান্ত হবে। এই ঋণের জন্য শ্রীলঙ্কার সরকারি ঋণদাতাদের কাছ থেকে অর্থ প্রাপ্তির নিশ্চয়তা চেয়েছে আইএমএম, পাশাপাশি বেসরকারি ঋণদাতাদের সঙ্গে একটি সহযোগিতা চুক্তিতে পৌঁছানোর চেষ্টা করবে সংস্থাটি। বিৃবতিতে বলা হয়, আইএমফের ঋণ পরিশোধ ও অর্থায়নের ব্যবধান দূর করতে শ্রীলঙ্কার ঋণদাতাদের কাছ থেকে ঋণ পরিশোধের প্রতিশ্রুতি ও বহুপক্ষীয় অংশীদারদের কাছ থেকে অতিরিক্ত অর্থায়নের নিশ্চয়তার প্রয়োজন পড়বে। স্বাধীনতার পর সবচেয়ে ভয়াবহ অর্থিক সংকটে পড়েছে ভারত মহাসাগরের ছোট্ট দ্বীপরাষ্ট্র শ্রীলঙ্কা। বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ফুরিয়ে যাওয়ায় তারা জ¦ালানি তেল, খাবার ও ওষুধের মত জরুরি পণ্য আমদানি করতে পারছে না দেশটি। নিত্যপণ্যের দাম সেখানে আকাশ ছুঁয়েছে; থমকে গেছে স্বাভাবিক জনজীবন। সংকটময় এ পরিস্থিতিতে দেশটি আইএমএফ এর কাছ থেকে জরুরি ভিত্তিতে ৩০০ কোটি ডলারের বেশি জরুরি ঋণ চেয়েছে। আইএমএফের এই ঋণ কর্মসূচির লক্ষ্য শ্রীলঙ্কাকে রাজস্ব পুনর্গঠনে সহায়তা, জ¦ালানি ও বিদ্যুতের জন্য নতুন মূল্য নির্ধারণ, সামাজিক ব্যয় বৃদ্ধি, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের স্বায়ত্তশাসন জোরদার এবং দেশের বৈদেশিক রিজার্ভ পুনর্গঠন করা। কিস্তি দিতে না পারায় শ্রীলঙ্কার প্রায় ৩ হাজার কোটি ডলারের ঋণ পুনর্গঠন করতে হবে। এ ব্যাপারে আলোচনার জন্য ভারত ও চীনসহ অন্যান্য প্রধান ঋণদাতা দেশগুলোর সঙ্গে আলোচনায় নেতৃত্ব দেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছে জাপান। ১ হাজার ৯০০ কোটি ডলারের বেশিরভাগ সার্বভৌম বন্ডের বিষয়েও আন্তর্জাতিক ব্যাংক ও প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে একটি চুক্তি করতে হবে শ্রীলঙ্কাকে, যেগুলো এখন খেলাপি শ্রেণিভুক্ত রয়েছে। বিদ্যুৎ, জ¦ালানি ও খাবারসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য ঘাটতিতে কয়েকমাস ধরে ধুঁকছে শ্রীলঙ্কা। দেশটিকে জরুরি ঋণ সহায়তা দেওয়ার বিষয়ে আলোচনা করতে আইএমএফ-এর একটি প্রতিনিধি দল বুধবার কলম্বোতে ছিল। তারা শ্রীলঙ্কার অর্থমন্ত্রীসহ সরকারের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনা করেছেন। এদিন আনুষ্ঠানিক ঘোষণা না দিলেও তারা একটি প্রাথমিক (স্টাফ লেভেল) চুক্তিতে উপনীত হওয়ার কথা জানিয়েছিলেন।