August 11, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Thursday, August 4th, 2022, 8:52 pm

সখীপুরে জমি দখলে নিয়ে বৃদ্ধা মাকে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দিলেন ছেলেরা

জেলা প্রতিনিধি, টাঙ্গাইল (সখীপুর) :

টাঙ্গাইলের সখীপুরে জমি দখলে নিয়ে এক বৃদ্ধা মাকে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দিয়েছেন ছেলেরা। উপজেলার কাকড়াজান ইউনিয়নের চকচকিয়া শ্রীপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর বৃদ্ধা আনোয়ারা বেগম (৭০) নয় দিন ধরে মেয়ের বাড়ি ভালুকা উপজেলার কৈয়াদী গ্রামে অবস্থান করছেন। আনোয়ারা বেগম ওই গ্রামের মৃত মাঈন উদ্দিনের স্ত্রী। এ ঘটনায় সখীপুর থানায় ছেলেদের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ওই মা।
লিখিত অভিযোগ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আনোয়ারা বেগমের স্বামী মাঈন উদ্দিন প্রায় ৩০ বছর আগে মারা যায়। স্বামীর রেখে যাওয়া ২৩ শতক জমি চাষ এবং ঝিয়ের কাজ করে অনেক কষ্টে ৫ ছেলে ও ১ মেয়েকে বড় করেছেন। সেই জমিটি ৫ ছেলে জোর করে দখল করে মায়ের থাকার বসত ঘরটি ভেঙ্গে দিয়ে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দিয়েছে।
বৃদ্ধা আনোয়ায়া বেগম আবেগ জনিত কণ্ঠে বৃহস্পতিবার দুপুরে বলেন, আমার ২৩ শতাংশ একটি জায়গা ছিল। সেই জায়গা ছেলেরা দখলে নিয়ে আমার থাকার ঘরটি ভেঙ্গে দিয়ে বাড়ি থেকে বের করে দিয়েছে। কিছুদিন এখানে, ওখানে ছিলাম। এখন মেয়ের বাড়িতে থাকতে হচ্ছে। তিনি আরও বলেন, সন্তানেরা বড় হলেও আমাকে কোন দিনও ভরণ-পোষণ করে নাই এ দুঃখ কার কাছে বলি। আমার শরীরে শক্তি নেই; চোখ ঝাপসা হয়ে গেছে। অন্যের সাহায্য ছাড়া চলাফেরা কষ্টসাধ্য। শরীরে এখন নানা অসুখে ধরেছে। ওষুধ কেনার পয়সা-কুড়ি নাই। বুড়া বয়সে এসে মাথা গোঁজার ঠাঁইটুকুও হারাতে হলো। তিনি ছেলেদের বিচার দাবি করে স্বামীর ভিটায় ফিরে যেতে চান। জীবনের অন্তিম সময়ে স্বামীর রেখে যাওয়া বাড়িতেই থাকতে চান তিনি। চলৎশক্তিহীন এ বৃদ্ধার নিদারুণ আহাজারি চলছে ছেলেদের তাড়িয়ে দেওয়ার পর থেকেই। বৃহস্পতিবার বৃদ্ধা আনোয়ারা তার মেয়েকে নিয়ে সখীপুরে এসছেন তারই ঔরসজাত ৫ ছেলের বিরুদ্ধে বিচার দিতে। এ ব্যাপারে আনোয়ারা বেগমের ছেলেদের বক্তব্য জানতে বহুবার চেষ্টা করেও নেওয়া সম্ভব হয়নি। এ বিষয়ে সখীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রেজাউল করিম বলেন, এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে দেখা হচ্ছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফারজানা আলম বলেন, বিষয়টি জানা নেই। খোঁজ নিয়ে প্রয়াজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।