June 29, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Friday, May 20th, 2022, 8:12 pm

সবসময় রিয়ালের সমর্থকদের হৃদয়ে থাকবে গ্যারেথ বেল: আনচেলত্তি

অনলাইন ডেস্ক :

প্রায় ৯ বছর আগে প্রত্যাশার ডালি সাজিয়ে সান্তিয়াগো বের্নাবেউয়ে পা রেখেছিলেন গ্যারেথ বেল। অনেক সাফল্য বয়ে এনে হয়ে উঠেছিলেন দলের নায়ক। তবে সময়ের পালাবদলে ‘পতন হতেও’ খুব বেশি দেরি হয়নি। দলে জায়গা হারানোর পাশাপাশি সমর্থকদের চক্ষুশুলেও পরিণত হন তিনি। এরপর শুধুই যেন শেষের অপেক্ষার পালা। অবশেষে রিয়াল মাদ্রিদে তার অম্ল-মধুর অধ্যায়ের ইতি ঘটতে যাচ্ছে। এই শেষবেলায় এসে সবার উদ্দেশ্যে কোচ কার্লো আনচেলত্তি বললেন, এতদিন বেল ক্লাবকে যা দিয়েছে সেগুলোর মূল্যায়ন করা উচিত। চলতি মৌসুমেই স্পেনের দলটির সঙ্গে চুক্তির মেয়াদ শেষ হচ্ছে ওয়েলস তারকার। সান্তিয়াগো বের্নাবেউয়ে শুক্রবার (২০ মে) রিয়াল বেতিসের বিপক্ষে চলতি মৌসুমে লা লিগার শেষ ম্যাচটি খেলবে রিয়াল। এরপর আগামী ২৮ মে লিভারপুলের বিপক্ষে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালে মাঠে নামবে মাদ্রিদের দলটি। এই দুই ম্যাচের কোনোটিতে বেলের মাঠে নামার সম্ভাবনা নিয়ে কিছু বলেননি আনচেলত্তি। গত বৃহস্পতিবারের সংবাদ সম্মেলনে তিনি বরং বললেন, অতীতে সে যা কিছু দিয়েছে তার প্রতি সম্মান জানানো উচিত। “সবাই জানে যে বেলের চুক্তির মেয়াদ শেষ হতে যাচ্ছে এবং সে এই বছর রিয়াল মাদ্রিদকে বিদায় জানাবে। সে খেলবে কি-না (বেতিসের বিপক্ষে) সেটা গুরুত্বপূর্ণ নয়। গুরুত্বপূর্ণ হলো বেল এই ক্লাবের ইতিহাসের অংশ। সে সব সময় রিয়াল সমর্থকদের হৃদয়ে থাকবে।” ২০১৩ সালে টটেনহ্যাম হটস্পার থেকে রিয়ালে যোগ দেন বেল। ক্লাবটির হয়ে তিনি তিনটি লা লিগা শিরোপার সঙ্গে জিতেছেন চারটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপা। শুরুতে রিয়ালের আক্রমণের বড় ভরসা হয়ে উঠেছিলেন বেল। কিন্তু পরবর্তীতে বারবার চোটের আঘাত তার চলার পথে বাধা হয়ে দাঁড়ায়। তার পেশাদারিত্ব ও দলের প্রতি দায়বদ্ধতাও প্রশ্নের মুখে পড়েছে এই সময়ে। মাঝে এক মৌসুম ধারে পুরোনো দল টটেনহ্যামে খেলে ফের রিয়ালে ফেরেন। কিন্তু নিজেকে আর পুরনো রূপে ফেরাতে পারেননি ৩২ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ড। চলতি মৌসুমে সুযোগ পেয়েছেন মাত্র সাত ম্যাচে। গত কয়েক মৌসুমে রিয়াল সমর্থকদের তো বটেই, স্প্যানিশ গণমাধ্যমেরও আক্রমণের বিষয়বস্তু ছিলেন বেল। গত মার্চে বার্সেলোনার বিপক্ষে রিয়ালের ৪-০ গোলে হারের পর বেলকে ‘পরগাছা’ আখ্যা দেয় স্প্যানিশ মিডিয়া। দুই বছর পর গত মাসে বের্নাবেউয়ে খেলতে নেমেছিলেন বেল। এ সময় সমর্থকদের দুয়োও শুনতে হয় তাকে। অথচ একটা সময় চিত্রটা ছিল সম্পূর্ণ বিপরীত। ২০১৮ সালে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালে লিভারপুলকে হারানোর পথে জোড়া গোল করেছিলেন বেল, যার একটি ছিল চোখ ধাঁধানো ওভারহেড কিকে। ২০১৪ সালে বার্সেলোনার বিপক্ষে স্মরণীয় কোপা দেল রে জয়েও ফাইনালে অসাধারণ একটি গোল করেছিলেন বেল। আনচেলত্তি সেগুলো উল্লেখ করে বললেন, বেলের সব কীর্তি স্বীকৃতির দাবি রাখে। “লা দেসিমা (দশম চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপা) জয়ে এবং (২০১৪) কোপা দেল রের ফাইনালে সে খুবই গুরুত্বপূর্ণ ছিল। সে এই ক্লাবের জন্য দুর্দান্ত কিছু অধ্যায় লিখেছে, আমাদের এর স্বীকৃতি দেওয়া উচিত।” অনেক দিন ধরে রিয়ালে ব্রাত্য হয়ে পড়লেও জাতীয় দলে এখনও খুব গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় হয়েই আছেন বেল। আগামী মাসের বিশ্বকাপের প্লে-অফ এবং নেশন্স লিগের তিন ম্যাচের জন্য ওয়েলস দল ঘোষণা হয়েছে গত বৃহস্পতিবার। সেই দলে আছেন বেল।