October 5, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Monday, January 3rd, 2022, 8:29 pm

সমতায় শেষ হলো লিভারপুল-চেলসি লড়াই

অনলাইন ডেস্ক :

দুই গোলে পিছিয়ে পড়ার পর চেলসি ঘুরে দাঁড়াল দুর্দান্তভাবে। চার মিনিটের মধ্যে লিভারপুলের জালে তারা বল পাঠাল দুইবার। দুই দলের গোলরক্ষক করলেন দারুণ কিছু সেভ। রোমাঞ্চ, উত্তেজনার ভেলায় ভেসে সমতায় শেষ হলো লড়াই। স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে রোববার প্রিমিয়ার লিগের হাইভোল্টেজ ম্যাচটি ২-২ গোলে ড্র হয়েছে। সবগুলো গোলই হয়েছে প্রথমার্ধে। লিভারপুলের হয়ে একটি করে গোল করেন সাদিও মানে ও মোহামেদ সালাহ। চেলসির দুই গোলদাতা মাতেও কোভাচিচ ও ক্রিস্টিয়ান পুলিসিক। ঘরের মাঠে বল দখলে কিছুটা এগিয়ে থাকা চেলসি গোলের জন্য শট নেয় মোট ১৫টি, যার ছয়টি ছিল লক্ষ্যে। লিভারপুলের ১০ শটের ছয়টি লক্ষ্যে ছিল। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ায় নিয়মিত গোলরক্ষক আলিসন, ডিফেন্ডার জোয়েল মাতিপ ও ফরোয়ার্ড রবের্তো ফিরমিনোকে এই ম্যাচে পায়নি লিভারপুল। একই কারণে ডাগআউটে থাকতে পারেননি দলটির কোচ ইয়ুর্গেন ক্লপ। অন্যদিকে, কিছুদিন আগে এক সাক্ষাৎকারে ‘চেলসিতে সুখে নেই’ বলে মন্তব্য করা রোমেলু লুকাকুকে স্কোয়াডে রাখেননি কোচ টমাস টুখেল। প্রতিপক্ষের ভুলে আর মানের দারুণ ফিনিশিংয়ে নবম মিনিটেই এগিয়ে যায় লিভারপুল। দিয়োগো জটার নিচু ক্রস হেডে ক্লিয়ার করার চেষ্টা করতে গিয়ে পারেননি চেলসির ডিফেন্ডার চালোবাহ। বল নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে গোলরক্ষককে কাটিয়ে বাঁ পায়ের শটে ঠিকানা খুঁজে নেন সেনেগালের ফরোয়ার্ড মানে। ২২তম মিনিটে জটার পাস ধরে ওয়ান-অন-ওয়ানে সালাহর শট দারুণ দক্ষতায় ঠেকিয়ে দেন স্বাগতিক গোলরক্ষক এদুয়াঁ মঁদি। যদিও অফ সাইডের পতাকা তোলেন লাইন্সম্যান। জালের দেখা পেতে অবশ্য বেশিক্ষণ অপেক্ষায় থাকতে হয়নি সালাহকে। ২৬তম মিনিটে চমৎকার গোলে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন তিনি। ট্রেন্ট অ্যালেকজ্যান্ডার-আর্নল্ডের থ্রু বল ধরে এগিয়ে গিয়ে দুরূহ কোণ থেকে মঁদিকে পরাস্ত করেন মিশরের এই ফরোয়ার্ড। বিরতির আগে চার মিনিটের মধ্যে গোল দুটি শোধ করে ম্যাচে ফেরে চেলসি। ৪২তম মিনিটে মার্কোস আলোনসোর ফ্রি-কিক পাঞ্চ করে ফেরান লিভারপুল গোলরক্ষক কেলেহার। ডি-বক্সের বাইরে থেকে অসাধারণ ভলিতে বল জালে পাঠান ক্রোয়াট মিডফিল্ডার কোভাচিচ। যোগ করা সময়ের প্রথম মিনিটে এনগোলো কঁতের বাড়ানো বল ডি-বক্সে বুক দিয়ে নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ওপরের কোনা দিয়ে দ্বিতীয় গোলটি করেন পুলিসিক। প্রথমার্ধের বাঁশি বাজার আগে ম্যাসন মাউন্টের প্রচেষ্টা পোস্টের সামান্য বাইরে দিয়ে যাওয়ায় আরেকটি গোল পায়নি চেলসি। আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে বিরতির পরও লড়াই চলে জমজমাট। তিন মিনিটের মধ্যে দুটি সুযোগ পায় লিভারপুল। তবে সালাহর প্রচেষ্টা ঠেকানোর পর মানের শট ফিরিয়ে দেন মঁদি। ৬২তম মিনিটে কাছ থেকে পুলিসিকের হাফ-ভলি ঠেকান কেলেহার। ৬৮তম মিনিটে আরেকটি সুযোগ পান সালাহ, এবার তার প্রচেষ্টা লক্ষ্যে থাকেনি। ৮২তম মিনিটে মাউন্টের প্রচেষ্টা রুখে দেওয়ার দুই মিনিট পর আলোনসোর ফ্রি-কিক ঠেকান কেলেহার। ২০ ম্যাচে ১২ জয় ও ৬ ড্রয়ে ৪২ পয়েন্ট নিয়ে তিনে আছে লিভারপুল। এক ম্যাচ বেশি খেলে ১২ জয় ও ৭ ড্রয়ে ৪৩ পয়েন্ট নিয়ে চেলসি আছে দুই নম্বরে। চেলসির সমান ম্যাচে ৫৩ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে শিরোপাধারী ম্যানচেস্টার সিটি।