September 27, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Sunday, August 21st, 2022, 7:36 pm

সম্মান পেয়ে অভিভূত মদ্রিচ

অনলাইন ডেস্ক :

বক্সের বাইরে থেকে চোখধাঁধানো এক গোল, দুর্দান্ত পাসে আরেক গোলে অবদান, মাঠজুড়ে দাপুটে বিচরণ। সব মিলিয়ে লুকা মদ্রিচের কাছেই বলা যায় হেরে গেল সেল্তা ভিগো। অথচ তিনি মাঠ ছেড়িয়ে বেরিয়ে যাওয়ার সময় দাঁড়িয়ে অভিনন্দন জানালেন সেল্তার সমর্থকেরা। ফুটবল যেন ছাড়িয়ে গেল জয়-পরাজয়ের সীমানা। প্রতিপক্ষের মাঠে এমন ভালোবাসা পেয়ে মুগ্ধ মদ্রিচও। বয়সকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে গত মৌসুমে অসাধারণ পারফর্ম করেন মদ্রিচ। রিয়ালের জাদুকর নতুন মৌসুমের শুরুটাও করেছেন দারুণ। ৩৭ ছুঁইছুঁই বয়সেও ধার কমার কোনো লক্ষণ নেই। গত শনিবার লা লিগায় সেল্তা ভিগোর বিপক্ষে রিয়ালের ৪-১ গোলে জয়ে যেমন মূল ভূমিকা তারই। ম্যাচে ১-১ গোলে সমতা থাকা অবস্থায় বক্সের বাইরে থেকে গোল করে দলকে এগিয়ে দেন মদ্রিচ। দ্বিতীয়ার্ধে নিজেদের অর্ধ থেকে দুর্দান্ত এক পাস দেন তিনি ভিনিসিউস জুনিয়রকে। ব্রাজিলের এই ফরোয়ার্ড দৃষ্টিনন্দন গোলে আরও এগিয়ে দেন দলকে। পরে ৭৭তম মিনিটে যখন উঠিয়ে নেওয়া হয় মদ্রিচকে, সেল্তার মাঠে দর্শকেরা তখন দাঁড়িয়ে ও তালি দিয়ে অভিবাদন জানান তাকে। ম্যাচের পর প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে মদ্রিচকে ছুঁয়ে গেল প্রবল আবেগ। “মাঠের পারফরম্যান্সের জন্য প্রতিপক্ষের ভক্তদের কাছ থেকে যখন স্বীকৃতি পাওয়া যায়, সেটি দারুণ ব্যাপার। এটি স্পেশাল। আমার হৃদয় স্পর্শ করেছে এটি এবং তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানানোর ভাষা খুঁজে পাচ্ছি না।” এই ম্যাচে রিয়ালের মাঝমাঠে অনেকেরই বাড়তি নজর ছিল কাসেমিরোর কারণে। বলা ভালো, কাসেমিরো না থাকার কারণে। মাঝমাঠের নির্ভরযোগ্য এই সেনানী হুট করেই চলে গেছেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে। তাকে ছাড়া রিয়াল কতটা গুছিয়ে নেয়, এই কৌতূহল ছিল। কিন্তু দুই তরুণ এদুয়ার্দো কামাভিঙ্গা ও অহেলিয়া চুয়ামেনিকে নিয়ে মদ্রিচ ভালোভাবেই সামাল দেন মাঝমাঠ। এই ম্যাচে অন্তত কাসোমিরোর অভাব বোধ হয়নি দলের। প্রিয় সঙ্গীর বিদায়ে ম্যাচের আগে আবেগময় খোলা চিঠিতে নিজের অনুভূতি জানান মদ্রিচ। তবে সেই আবেগ পাশে রেখে এখন সামনে তাকানোর পালা। মদ্রিচ বললেন, কাসেমিরোর শূন্যতা পূরণে তাদেরকে এখন খাটতে হবে আরও বেশি। “আমরা দারুণ খেলেছি আজ, বিশেষ করে প্রথমার্ধের শেষ ভাগ থেকে। দুটি জয় দিয়ে মৌসুম শুরু করতে পারাও দারুণ ব্যাপার।” “কাসেমিরো এই ক্লাবে ইতিহাস গড়েছে এবং আমরা নিশ্চিতভাবেই তার অভাব বোধ করব। তবে এখন আমাদের সামনে এগিয়ে যেতে হবে এবং তার ভূমিকায় যে ঘাটতি, সেটি পূরণে সবার বাড়তি চেষ্টা করতে হবে। আমার বিশ্বাস, সেটি করার সামর্থ্য আমাদের আছে।”