August 14, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Thursday, June 30th, 2022, 7:50 pm

সাকিবের ছুটিতে বিসিবির আপত্তি নেই

অনলাইন ডেস্ক :

গত বুধবার সকালেই বিসিবির মিডিয়া বিভাগ থেকে জানানো হয়, পরিচালকদের চতুর্থ সভা দুপুর আড়াইটায় শুরু হবে। হুট করেই আয়োজিত বোর্ড সভায় গত বুধবার তাই সব পরিচালক সশরীরে উপস্হিত ছিলেন না। তবে মিরপুর স্টেডিয়ামের বিসিবির কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সভায় অনলাইনের মাধ্যমে যুক্ত হয়েছিলেন কয়েক জন পরিচালক। দীর্ঘ মিটিংয়ের পর সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা নাগাদ সংবাদ সম্মেলনে হাজির হন বিসিবি সভাপতি নাজুমল হাসান পাপন ও বোর্ড পরিচালকরা। সভায় বিসিবির বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম), বার্ষিক বাজেট, পূর্বাচলে শেখ হাসিনা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম, ঢাকায় আরও মাঠ বাড়াতে জায়গা কেনা, জাতীয় দলের সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স, বিশেষ করে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট নিয়ে আলোচনা হয়েছে। টেস্টের টানা ব্যর্থতার কারণ খুঁজতে ওয়ার্কিং কমিটি করেছে বিসিবি। তবে সভা শেষে সংবাদ সম্মেলনে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের ওয়ানডে সিরিজ থেকে সাকিব আল হাসানের ছুটি চাওয়ার বিষয়টি উঠে এসেছে। আনুষ্ঠানিকভাবে বিসিবিকে কোনো চিঠি দেননি। অবশ্য ক্যারিবিয়ান সফরের আগেই গুঞ্জন ছিল তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজটা খেলতে চান না সাকিব। সাকিবের ছুটি প্রসঙ্গে পাপন বলেন, ‘আমি এটা শুনেছি যে ও (সাকিব) জালাল ভাইকে নাকি বলেছে ওয়ানডে না-ও খেলতে পারে, আগেই বলেছে। ও যেহেতু বোর্ডের সঙ্গে এখন পর্যন্ত যোগাযোগ করে নাই, হয়তো আমার ধারণা আজ-কালের মধ্যে ওর সঙ্গে কথা হলে বুঝতে পারব। অফিশিয়ালি বোর্ডকে এখনো কিছু বলেনি। তবে অফিসিয়াল ধরতেও পারেন, জালাল ভাইকে নাকি মৌখিক বলেছে।’ সাকিবকে ছুটি দিতে আপত্তি নেই বিসিবির। কারণ এই সিরিজটি ওডিআই সুপার লিগের অংশ নয়। সেক্ষেত্রে তরুণদের পরখ করার সুযোগ দেখছেন বোর্ড সভাপতি। আগামী ১৯ জুলাই এজিএম আয়োজনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিসিবি। শেখ হাসিনা আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামের ডিজাইনের জন্য টেন্ডারে তিনটি কোম্পানি অংশ নিয়েছে। এজন্য একটি কমিটি করা হয়েছে। ঈদের পর বিসিবি ও ওই কমিটির সামনে প্রেজেন্টেশন দিবে আগ্রহী প্রতিষ্ঠানগুলো। তবে টেস্ট ক্রিকেটে টাইগারদের ধারাবাহিক ব্যর্থতা ভাবিয়ে তুলেছে বিসিবিকেও। এর কারণ খুঁজবে ওয়ার্কিং কমিটি। এদিকে ক্লাব ক্রিকেট সুন্দরভাবে চালানোর জন্য ঢাকার ভেতরেই জায়গা কিনে তিনটি মাঠ তৈরির চিন্তা করছে বিসিবি। জায়গাও খোঁজা শুরু করেছে বোর্ড। মূলত ক্রিকেট কমিটি অব ঢাকা মেট্রোপলিস (সিসিডিএম) নিচের দিকের তিনটি লিগ পরিচালনার জন্যই মাঠগুলো ব্যবহার করবে।