October 7, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Friday, September 23rd, 2022, 3:17 pm

সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা জয়ীস্বপ্নাকে বরণে প্রস্তুত রংপুর

নিজস্ব প্রতিবেদক, রংপুর :

সদ্য সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা জয়ী দলের অন্যতম ১০ নম্বর জার্সিধারী ফুটবলার সিরাত জাহান স্বপ্নাকে রংপুরে ব্যপক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে জেলা প্রশাসন, জেলা ক্রীড়া সংস্থা, উপজেলা প্রশাসন, উপজেলা পরিষদ। গরু জবাই করে সংবর্ধনা আয়োজনের ঘোষণা দিয়েছেন এলাকাবাসী। ম্যাচ জেতার পরে কথা হয় স্বপ্নার মা লিপি বেগম ও বাবা মোকছার আলীর সাথে। তারা আবেগআপ্লুত কণ্ঠে বলেন, ‘আমার মেয়ে যে দলে খেলেছে সেই দল আজ সাফ গেমসে চ্যাম্পিয়ন। রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীসহ সবাই দলকে অভিনন্দন জানাচ্ছেন। গর্বে বুকটা ভরে যাচ্ছে।’
মা লিপি বেগম বলেন, রোববার রাতে স্বপ্না ফোনে সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন দল যাতে জিততে পারে। স্বপ্নার কথা মত আমরা সবাই প্রাণভরে দোয়া করছি। তিনি জানান, তার ৩ মেয়ে। দুই মেয়ের বিয়ে হয়েছে। স্বপ্না সবার ছোট। ২০১১ সাল থেকে ফুটবলের সাথে জড়িয়ে আছে তার মেয়ে। মেয়ের এবং দেশের সাফল্যে তারা সবাই খুশি । কি যে আনন্দ হচ্ছে তা ভাষায় প্রকাশ করতে পারব না বলে অভিব্যক্তি ব্যক্ত করেন স্বপ্নার বাবা-মা।
সদ্যপুষ্করণী যুব স্পোর্টিং ক্লাব এএফসির ‘বি’ লাইসেন্সধারী কোচ মিলন মিয়া বলেন, বাংলাদেশ তথা স্বপ্নার সাফল্যে তিনি খুব খুশি। তিনি বলেন, ফাইনালে স্বপ্নাকে মাঠে নামানো হয়েছিল। কিন্তু ইনজুরি কারণে কিছুক্ষণ পরে তাকে তুলে নেয়া হয়। স্বপ্না ভারত, পাকিস্তাান ও ভুটানের বিপক্ষে মোট ৪টি গোল করেছেন। স্বপ্নার এই সাফল্যে পালিচড়াবাসি খুবই আনন্দিত।
রংপুর নগরী থেকে প্রায় ১৫ কিলোমিটার দূরের গ্রাম পালিচড়া গ্রাম। এটি সদর উপজেলার সদ্যপুষ্করণী ইউনিয়নে। এখানে এক সময় ছেলেদের খেলাধুলাই ছিল স্বপ্ন। সেখানে মেয়েরা ফুটবলে দেশসেরা হওয়ার গৌরব অর্জন করেছে বেশ কয়েকবার। বর্তমানে পালিচড়ার বেশ কজন নারী ফুটবলার উন্নত প্রশিক্ষণ নিচ্ছেন। জাতীয় পর্যায়ে সদ্যপুষ্করণী যুব স্পোর্টিং ক্লাব নারী খেলোয়ার তৈরিতে অবদান রাখছে। যা ইতোমধ্যে দেশবাসীকে নজর কাড়তে সক্ষম হয়েছে।
স্বপ্নার বাড়িতে গিয়ে সংবর্ধনা আয়োজন বিষয়ে খোঁজ খবর নেন উপজেলা চেয়ারম্যান ও ইউএনও। এসময় স্বপ্নার পরিবারবে নগদ বিশ হাজার টাকা প্রদান করা হয়। এর আগে স্বপ্নার মাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান এবং মিষ্টি খাওয়ান তারা। পরে সংবর্ধনার বিষয়ে সাংবাদিকদের বিস্তারিত জানান উপজেলা চেয়ারম্যান নাসিমা জামান ববি ও ইউএনও নুর নাহার বেগম।
উপজেলা প্রশাসন সুত্রে জানা যায়, সিরাত জাহান স্বপ্না যেদিন রংপুরে আসবে সেদিন সৈয়দপুর বিমানবন্দনে তাকে অভ্যার্থনা জানানো হবে। পরে ফুটবল কন্যাদের গ্রাম পালিচড়ায় নির্মিত শেখ রাসেল স্টেডিয়ামে এক প্রীতি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। প্রীতি ম্যাচ শেষে সিরাত জাহান স্বপ্নাকে জেলা প্রশাসন, জেলা ক্রীড়া সংস্থা, উপজেলা প্রশাসন, উপজেলা পরিষদ ও পালিচড়াবাসী এবং সকল রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে দেয়া হবে বিশাল সবংর্ধনা।
এ বিষয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান নাসিমা জামান ববি বলেন, উপজেলা পরিষদ নারী ফুটবলারদের একেবারে শুরু থেকেই আছি, এখনও আছি, আগামীতেও থাকবে। স্বপ্নার পরিবারকে উপজেলা পরিষদের পক্ষ থেকে তাৎক্ষনিকভাবে ২০ হাজার টাকা দেয়া হয়েছে। পরবর্তিতে আরো দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।
রংপুরের জেলা প্রশাসক আসিব আহসান জানান, সম্ভাব্য দুই একদিনের মধ্যেই সিরাত জাহান স্বপ্না রংপুরে আসতে পারে। স্বপ্নাকে বরণ করে নিতে সেদিন পালিচড়া মাঠে আয়োজন করা হয়েছে প্রীতি ফুটবল ম্যাচ, জেলা প্রশাসন ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সংবর্ধনা। উপজেলা প্রশাসনকে সংবর্ধনা ও প্রীতি ম্যাচ আয়োজনের সবধরণের ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
এদিকে প্রশাসনের পাশাপাশি গ্রামের কৃতি ফুটবলার সিরাত জাহান স্বপ্নাকে বরণ করে নেয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন এলাকাবাসী। স্বপ্নাকে বিমানবন্দর থেকে লালগালিচা দিয়ে বরণ করে নিবেন এলাকাবাসী। সেই সাথে পালিচড়া স্টেডিয়ামে প্রীতি ফুটবল ম্যাচ পরবর্তি সংবর্ধনা শেষে গরু জবাই করে খাওয়ানোর প্রস্তুতির কথা জানালেন কয়েকজন এলাকাবাসী।
সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা জয়ী সিরাত জাহান স্বপ্নার বাড়ি রংপুর সদরের সদ্যপুস্কুরিনী পালিচড়ার জয়রাম গ্রামে। স্বপ্নার পিতা মোকছার আলী মা লিপি বেগম। স্বপ্নার বাবা একজন বর্গাচাষী। একসময় তাদের মাথা গোঁজার ঠাঁই ছিল না। স্বপ্না যেন ভাঙ্গাঘরে চাঁদের আলো।
স্বপ্না সদ্যপুস্কুরিনী পালিচড়া ফুটবল দলের খেলোয়াড়। সিরাত জাহান স্বপ্না ২০১৩ সালে জাতীয় দলের ক্যাম্পে ডাক পায়, সেই থেকে এখন পর্যন্ত জাতীয় দলে খেলছেন। এই সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশিপে ৪ গোল করে দেশের জয়ে ভূমিকা রেখেছেন স্বপ্না।##