May 25, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Sunday, March 20th, 2022, 8:34 pm

সিলেটে টিসিবির পণ্য বিক্রি শুরু পণ্য ক্রয়ে খুশি সাধারণ মানুষ

জেলা প্রতিনিধি, সিলেট :
সিলেট জেলার ১৩টি উপজেলার ৪৪টি স্থানে ও সিটি কর্পোরেশনের ১৮টি ওয়ার্ডে টিসিবর পণ্য রবিবার (২০ মার্চ) থেকে বিক্রি শুরু হয়েছে। আসন্ন পবিত্র রমজান উপলক্ষে এসকল স্থানে একযোগে পণ্য বিক্রি করবে টিসিবি। সঠিকভাবে কার্যক্রম পরিচালনার জন্য আলাদা মনিটরিং টিমও গঠন করেছে জেলা প্রশাসন। যারা সর্বক্ষণ টিসিবির পণ্য বিক্রির তদারকি করবে। এদিকে টিসিবির মালামাল বিক্রির প্রথম দিন মানুষের ভীড় ছিলো চোখে পড়ার। বাজারের তুলনায় কমদামে পণ্য পেয়ে খুশি সুবিধাভোগী সাধারণ ও নি¤œআয়ের এসব মানুষেরা।
প্রশাসনের কর্মকর্তারা জানান, প্রকৃত মানুষের কাছে পণ্য বিক্রি করতে ও কার্যক্রম তত্বাবধানে অনেকগুলো মনিটরিং টিম কাজ করছে।
এই কার্যক্রমে কোনো ধরনের অনিয়মের অভিযোগ পেলে তার বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে বলে জানান কর্মকর্তারা। তবে, চাহিদার সমান্তরালে ফ্যামেলি কার্ডের সংখ্যা বাড়ানো প্রয়োজন বলে জানান জনপ্রতিনিধিরা।
‘ফ্যামিলি কার্ডের মাধ্যমে সিলেট বিভাগের ৪ লাখ ৬১ হাজার ৫২১টি পরিবার টিসিবি’র পণ্য কিনতে পারবে। টিসিবি’র পণ্য বিক্রি উপলক্ষে শনিবার (১৯ মার্চ) বিকেলে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে এক সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।
জানা যায়, প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে সিলেট সিটি কর্পোরেশন এলাকার ১৪টি ওয়ার্ডে (১ থেকে ১৪ নম্বর ওয়ার্ড) টিসিবি’র পণ্য পাওয়া যাবে। পরবর্তীতে অন্যান্য ওয়ার্ডেও পাওয়া যাবে এসব পণ্য। টিসিবির ট্রাক থেকে প্রতিজন ১১০ টাকা প্রতি লিটার দামে ২ লিটার সয়াবিন তেল, ৫৫ টাকা প্রতি কেজি দামে ২ কেজি চিনি ও ৬৫ টাকা প্রতি কেজি দামে ২ কেজি মসুরের ডাল কিনতে পারবেন। সুবিধাভোগীরা ‘ফ্যামিলি কার্ডের মাধ্যমে মাসে দুইবার এই সুবিধা পাবেন।
জেলা প্রশাসক বলেন, সিলেট সিটি কর্পোরেশন এলাকার মোট ৪৫ হাজার পরিবার টিসিবি’র পণ্য পাবেন। তাদের জন্য বরাদ্দ থাকবে মোট ৯০ হাজার লিটার সয়াবিন তেল ৯০ হাজার মেট্রিক টন চিনি ও ৯০ হাজার মেট্রিক টন মসুরের ডাল। আর সিলেট জেলার ১ লক্ষ ৩৭ হাজার ৩৬৩ পরিবার পাবে মোট ২ লক্ষ ৭৪ হাজার ৭০০ লিটার সয়াবিন তেল, ২ লক্ষ ৭৪ হাজার ৭০০ মেট্রিক টন চিনি ও ২ লক্ষ ৭৪ হাজার ৭০০ মেট্রিক টন মসুরের ডাল।
জেলা প্রশাসক আরও জানান, টিসিবি’র পণ্য বিক্রয়ের ক্ষেত্রে স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতে থাকবে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের প্রতিটি ওয়ার্ডে থাকবে মনিটরিং টিম। এছাড়াও মাঠে থাকবে বাণিজ্যমন্ত্রণালয়ের পক্ষে ও উপজেলা প্রশাসনের পক্ষে পৃথক মনিটরিং টিম।