December 8, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Sunday, November 13th, 2022, 3:21 pm

সিলেটে ২১ হাজার ৭শ কৃষক রবি মৌসুমে প্রণোদনা পাচ্ছেন

জেলা প্রতিনিধি, সিলেট :

সিলেট অফিস :
সিলেট বিভাগের চার জেলায় প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের সহায়তা এবং রবি মৌসুমে ফসলের উৎপাদন বৃদ্ধিতে ৫০হাজার প্রান্তিক এবং ক্ষুদ্র কৃষকদের মাঝে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে সার ও সরিষা বীজ সহায়তা দেওয়া হচ্ছে।
কয়েক দফা বন্যায় এবার আমন ধানসহ বিভিন্ন ফসল ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। করোনার কারণেও সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন প্রান্তিক এবং ক্ষুদ্র কৃষকরা। তাই আসন্ন রবি মৌসুমে বোরো ধানসহ অন্যান্য ফসলের উৎপাদন যাতে ব্যাহত না হয় এবং কৃষকরা নিরবচ্ছিন্নভাবে চাষাবাদ চালিয়ে যেতে পারেন এজন্য কৃষি বিভাগ প্রণোদনা এবং পুনর্বাসন কর্মসূচির মাধ্যমে কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ ও সার বিতরণের কার্যক্রম শুরু করেছে।
ইতিমধ্যে সিলেটের জেলা প্রশাসক সিলেট কৃষি বিভাগকে সাথে নিয়ে সিলেটের বিভিন্ন উপজেলায় কৃষকদের মধ্যে সার ও বীজ বিতরণ করছেন।
এ বছর সিলেট বিভাগে রবি মৌসুমে কৃষি পুর্নবাসনের আওতায় প্রণোদনা পাচ্ছেন বিভাগের ৫০ হাজার প্রান্তিক চাষি। এই কর্মসূচির আওতায় সরিষা বীজ সহ নানা ফসলের বীজ এবং রাসায়নিক সার পাচ্ছেন ওই সংখ্যক কৃষক।

কৃষি বিভাগ সূত্র জানিয়েছে বিশ্ব ব্যাপি সংকট হতে পারে বিবেচনায় দেশের আগামি সংকট উত্তোরণের জন্য জেলায় এত সংখ্যক কৃষকদের এই প্রণোদনার আওতায় আনা হয়েছে।
সিলেট কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, জেলায় ২০২২-২০২৩ অর্থবছরে রবি মৌসুমে সরিষা, সূর্যমুখী, চিনাবাদাম, সয়াবিন, শীতকালীন পেঁয়াজ, মুগ, মসুর ও খেসারির আবাদ ও উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য এ প্রণোদনার আওতায় বিনা মূল্যে বীজ ও সার পাবেন। প্রতিজন সরিষা চাষিদের ১ কেজি করে সরিষা বীজ, ১০ কেজি করে ডিএপি এবং এমওপি সার দেওয়া হচ্ছে। একজন কৃষক এক বিঘা জমিতে চাষের জন্য প্রয়োজনীয় বীজ ও সার পাবেন।
সিলেট কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের সহকারী উপপরিচালক মোঃ ফারুক হোসাইন বলেন, এ বছর সিলেটের ১৩টি উপজেলায় ২১ হাজার ৭শ জন কৃষকের মধ্যে জনপ্রতি ১ কেজি করে সরিষা বীজ, ১০ কেজি করে ডিএপি এবং এমওপি সার বিতরণ করা হবে। সিলেট সদরে ১৮৫০, দক্ষিণ সুরমায় ১৮৫০, গোয়াইনঘাটে ১৯৫০, বালাগঞ্জে ১১৪০, ওসমানীনগরে ১৩৪০, কোম্পানীগঞ্জে ১৫৫০, বিশ্বনাথে ১৭৫০, ফেঞ্চুগঞ্জে ১৫৫০, গোলাপগঞ্জে ১৯৫০, জৈন্তাপুরে ১৬৫০, কানাইঘাটে ১৮৫০, জকিগঞ্জে ১৬৫০, বিয়ানীবাজারে ১৬২০ জন কৃষকের মধ্যে ২১ হাজার ৭শ কেজি সরিষা বীজ, ২১ লক্ষ ৭ হাজার কেজি ডিএপি ও ২১ লক্ষ ৭ হাজার কেজি এমওপি সার বিতরণ করা হবে।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সিলেট অঞ্চলের উপপরিচালক কাজী মুজিবুর রহমান বলেন, এ বছর সিলেট বিভাগের ৫০ হাজার বিঘা জমিতে ৫০ হাজার কৃষককে ৫০ হাজার কেজি সরিষা বীজ, ৫ লাখ কেজি ডিএপি এবং ৫ লাখ কেজি এমওপি সার মোট ১০ লাখ কেজি সার বিতরণ করা হবে। সরকার চাষিদের উৎপাদনে উৎসাহিত করতেই এই প্রণোদনার ব্যবস্থা করছে। সিলেট কৃষি বিভাগ উৎপাদনের শুরু থেকে উৎপাদিত পন্য কৃষকের ঘরে পৌছা পর্যন্ত মাঠেই থাকবে।