June 28, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Tuesday, June 21st, 2022, 8:52 pm

সিলেট বিভাগে বন্যায় ৭ দিনে ২২ জনের মৃত্যু: বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক

সুনামগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতি

সিলেট বিভাগে সম্প্রতি বন্যায় ১৫ জুন থেকে ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক হিমাংশু লাল রায়।

তিনি ইউএনবিকে বলেন, ‘এই পর্যন্ত বন্যায় সিলেট বিভাগে ২২ জনের মৃত্যুর তথ্য আমরা পেয়েছি। এর মধ্যে সিলেটে ১৪ জন, মৌলভীবাজারে তিনজন ও সুনামগঞ্জের পাঁচজন মারা গেছেন।’

তাদের মধ্যে ডুবে যাওয়ার তিনদিন পর মঙ্গলবার সকালে সিলেটের জৈন্তাপুরে মা-ছেলের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

হিমাংশু বলেন, বজ্রপাত, সাপের কামড়, বিদ্যুৎস্পৃষ্ট, ভূমিধস ও পানিতে ডুবে এসব মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে।

এর আগে সোমবার সিলেটের জেলা প্রশাসক মজিবুর রহমান সিলেটে একজনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন এবং সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নুশরাত আজমিরী সদর উপজেলায় তিনজনের এবং ছাতক উপজেলায় আরও একজনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

সিলেট ও সুনামগঞ্জের ভয়াবহ বন্যা দেখা দিয়েছে। দুই জেলার প্রায় ৮০ শতাংশ এলাকা পানিতে তলিয়ে গেছে। সোমবার পর্যন্ত অন্তত ৪০ লাখ মানুষ পানিবন্দি ছিলেন।

খাদ্য ও সুপেয় পানির সংকটে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন দুই জেলার বাসিন্দারা।

মঙ্গলবার সিলেট জেলার জৈন্তাপুর উপজেলার দরবস্ত এলাকায় নাজমুন্নেসা (৫০) ও তার ছেলে আবদুর রহমান (১৪) কে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায় বলে জানান ইউএনও আল বশিরুল ইসলাম।

কানাইঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তাজুল ইসলাম জানান, বৃহস্পতিবার মাছ ধরতে গিয়ে কানাইঘাট হাওরে বন্যার পানিতে ডুবে এক ব্যক্তির ডুবে যান। শুক্রবার তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

সিলেটের জেলা প্রশাসক মজিবুর রহমান জানান, সিলেট মহানগর ছাত্রলীগের নেতা টিটু চৌধুরী সোমবার বন্যার পানিতে ভেঙ্গে পড়া একটি বৈদ্যুতিক তার স্পর্শ করার পর তার রায়নগরের বাসায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা যান।

সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নুসরাত আজমেরী জানান, এ উপজেলায় তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে একজন বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা গেছেন এবং অন্য দুজন বন্যার পানিতে ডুবে মারা গেছেন।

নিহতদের মধ্যে দুজন হলেন- জালালাবাদের নোয়াপাড়ার মনির হোসেন ও নলকাট গ্রামের কলেজছাত্র আব্দুল হাদী।

এছাড়া এ কে আবুল কাশেম (২৪) ও সুরেতুন নেছা (১০৫) নামে আরও দুই ব্যক্তি নগরীতে যাওয়ার সময় বন্যার পানিতে নৌকা ডুবে মারা যান।

এদিকে সুনামগঞ্জ জেলায় বন্যার পানিতে ডুবে ছাতক উপজেলার জুনায়েদের মৃত্যু হয়েছে বলে জানান ইউএনও মামুনুর রশিদ।

এছাড়া জেলার ছাতক উপজেলায় পানিতে ডুবে হানিফা বেগম নামে এক স্কুলছাত্রীর মৃত্যু হয়েছে।

মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলার আদিত্য মহলে বন্যার পানিতে ডুবে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে।

—ইউএনবি