October 3, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Tuesday, September 20th, 2022, 6:30 pm

সিলেট ৬১১ মন্ডপে চলছে দুর্গাপূজার প্রস্তুতি

জেলা প্রতিনিধি, সিলেট :
সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গোৎসবকে ঘিরে সিলেটের সর্বত্র চলছে ব্যাপক প্রস্তুতি। আর ক’দিন পরেই পূজার জন্য মন্দিরে প্রতিমা স্থাপন করতে হবে। শিল্পীদের রঙিন তুলির আঁচড়ে প্রতিমাগুলো যেন জীবন্ত হয়ে উঠবে। মহানগরীর পাশাপাশি মফস্বল এলাকায়ও পূজা কমিটিগুলো নিজেদের শ্রেষ্ঠত্ব দর্শনার্থীদের সামনে তুলে ধরার চেষ্টায় কাজ করছেন দিনরাত। প্রতিমা শিল্পীদের কাজ আর পূজা কমিটির ব্যস্ততা ঘোষণা করছে অত্যাসন্ন দুর্গোৎসবের। কারিগররা ব্যস্ত মূর্তি সাজাতে। আর পূজা কমিটিগুলো ব্যস্ত পূজার স্থান নির্ধারণসহ আনুষাঙ্গিক কাজে। অনেকেই মূর্তি বানানোর জন্য দেশের নামকরা প্রতিমা নির্মাতা শিল্পীদের সাথে চুক্তি করে কাজ করছেন। প্রতিমা নির্মাতা শিল্পীরা বাঁশ-খড়ের কাজ শেষ করে মাটির কাজ করছেন। কেউবা মূর্তিতে রং তুলির কাজ নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন।
পূজোর যাবতীয় উপকরণ, পূজো, পুষ্পাঞ্জলি প্রদান, চন্ডীপাঠ, মহাপ্রসাদ বিতরণ, আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, আরতী, ভজন কীর্ত্তন, আলোকসজ্জা ও ডেকোরেশনসহ নানান প্রস্তুতি এখন প্রায় শেষ পর্যায়ে রয়েছে। পূজা আয়োজনকারী কমিটিগুলো ও পারিবারিক পূজা উদ্যোক্তারা এখন সর্বশেষ নান্দনিক সুন্দর আয়োজনের জন্য বিরামহীনভাবে কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন।
শারদ উৎসব উপলক্ষে নগরীর বিপণীবিতানগুলোতে সকাল থেকে মার্কেট ও শপিং মল বন্ধ হওয়ার আগ পর্যন্ত সনাতন ধর্মাবলম্বী ক্রেতাদের ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। সনাতন ধর্মের লোকজন নতুন পোশাক ক্রয় করতে এমার্কেট-ওমার্কেট ঘুরে বেড়াচ্ছেন। সর্বত্রই এক সাজ সাজ রব পড়েছে।
এবার সিলেট মহানগর ও জেলায় ৬১১টি মন্ডপে পূজা আয়োজন করা হয়েছে। তার মধ্যে সার্বজনীন ৫৬১টি, পারিবারিক ৫০টি পূজোর আয়োজন হয়েছে। মহানগরীতে ১৫৪টি পূজার মধ্যে সার্বজনীন ১৩৫টি ও পারিবারিক ১৯টি। জেলায় ৪৫৭টি পূজার মধ্যে সার্বজনীন ৪২৬টি ও পারিবারিক ৩১টি।
জানা গেছে, মহানগরীর ৬টি থানা এলাকায় এবার মোট ১৫৪টি পূজামন্ডপে পূজার আয়োজন করা হয়েছে। কোতোয়ালী থানা এলাকায় ৪০টি এর মধ্যে সার্বজনীন ২৯টি ও পারিবারিক ১১টি, জালালাবাদ থানা এলাকায় মোট ২০টির মধ্যে সার্বজনীন ১৬টি ও পারিবারিক ৪টি। এয়ারপোর্ট থানা এলাকায় ৪১টির মধ্যে সার্বজনীন ৪০টি ও পারিবারিক ১টি। শাহপরান (রহ:) থানা এলাকায় ২২টি এর মধ্যে সার্বজনীন ২১টি ও পারিবারিক ১টি। দক্ষিণ সুরমা উপজেলায় সার্বজনীন ১৪টি। পারিবারিক পূজা নেই। মোগলাবাজার এলাকায় ১৭টির মধ্যে সার্বজনীন ১৫টি ও পারিবারিক ২টি।
আর জেলায় মোট ৪৫৭টি মন্ডপে শারদীয় দুর্গাপূজার আয়োজন করা হয়েছে। গোলাপগঞ্জ উপজেলায় সার্বজনীন ৫৭টি ও পারিবারিক ৩টি। বালাগঞ্জ উপজেলায় সার্বজনীন ২৮টি ও পারিবারিক ২টি। কানাইঘাট উপজেলায় সার্বজনীন ৩৫টি। জৈন্তাপূর উপজেলায় সার্বজনীন ২০টি ও পারিবারিক ২টি। বিশ্বনাথ উপজেলায় সার্বজনীন ২৪টি ও পারিবারিক ২টি। গোয়াইনঘাট উপজেলায় সার্বজনীন ৩৬টি। জকিগঞ্জ উপজেলায় সার্বজনীন পূজা ৯৯টি।
বিয়ানীবাজার উপজেলায় সার্বজনীন পূজা ৩৯টি, পারিবারিক ১৩টি। কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় সার্বজনীন ২৫টি, পারিবারিক ১টি, ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলায় সার্বজনীন ৩৭টি এবং ওসমানীনগর উপজেলায় সার্বজনীন পূজা ২৬টি ও পারিবারিক ৮টি পূজা অনুষ্ঠিত হবে।
সাধারণত আশ্বিন মাসের শুক্ল পক্ষের ষষ্ঠ থেকে দশম দিন পর্যন্ত শারদীয় দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হয়। এই পাঁচটি দিন যথাক্রমে মহাষষ্ঠী, মহাসপ্তমী, মহাঅষ্টমী, মহানবমী ও বিজয়া দশমী নামে পরিচিত। আশ্বিন মাসের শুক্ল পক্ষটিকে বলা হয় দেবীপক্ষ। দেবীপক্ষের সূচনা অমাবস্যার নাম মহালয়া। এর আগের পূর্ণিমা তিথি থেকে পিতৃপক্ষের সূচনা থেকেই সনাতন ধর্মাবলম্বীরা তর্পণ করে তাঁদের পূর্বপুরুষদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। মহালয়ার দিন তর্পণ নিবেদন সম্পন্ন হয়।
আগামী ২৫ সেপ্টেম্বর পবিত্র মহালয়া। আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর মহাপঞ্চমী, ১ অক্টোবর মহাষষ্ঠী, ২ অক্টোবর মহাসপ্তমী, ৩ অক্টোবর মহাঅষ্টমী, ৪ অক্টোবর মহানবমী ও ৫ অক্টোবর বিজয়া দশমী।
পূজোর প্রস্তুতি প্রসঙ্গে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মৃত্যুঞ্জয় ধর ভোলা জানান, সিলেট বিভাগে শান্তিপূর্ণভাবে পূজা আয়োজনের জন্য ব্যাপক প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। এবার পূজোয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার, প্রতিটি পূজামন্ডপে স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগ, জেনারেটর রাখা ও পরিদর্শন বই রাখার জন্য সকলকে অনুরাধ করেছি।