June 13, 2024

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Monday, April 22nd, 2024, 7:30 pm

সুখবর দিলেন তিশা-ফারুকী

অনলাইন ডেস্ক :

কিছু দিন ধরে শারীরিক অসুস্থতায় আছেন নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকী। এর বাইরে চলতি বছরটি তার জন্য আনন্দে ভরপুর। একের পর এক সিনেমা মুক্তি পাচ্ছে, দেশ-বিদেশে দর্শকের ভালোবাসাও পাচ্ছেন। এবার একসঙ্গে দুটি সুখবর ভেসে এলো তার ঘরে। সেটা ‘সামথিং লাইক অ্যান অটোবায়োগ্রাফি’ ছবির সূত্র ধরে। প্রথমটি হলো-যুক্তরাজ্যের প্রথম সারির টিভি চ্যানেলে প্রচার হবে নুসরাত ইমরোজ তিশা অভিনীত ছবিটি। ব্রিটিশ সরকারের মালিকানাধীন টেলিভিশন ‘চ্যানেল ফোর’-এ দেখানো হবে এটি। ইতোমধ্যে ‘অটোবায়োগ্রাফি’র প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ও চ্যানেলটির সঙ্গে চুক্তি সম্পন্ন হয়েছে। এই ফাঁকে বলা জরুরি, চ্যানেল ফোর-এ প্রথম বাংলাদেশি ছবি হিসেবে প্রদর্শিত হয়েছিল তারেক মাসুদ নির্মিত ‘মাটির ময়না’। এরপর একই নির্মাতার আরও দুটি ছবি দেখানো হয়।

অতঃপর চতুর্থ ছবি হিসেবে চ্যানেলটির পর্দায় উঠছে ফারুকীর সিনেমা। জানা গেছে, চলতি বছরের জুন মাস থেকে শুরু হওয়া অধিবেশনে প্রচার হবে ছবিটি। দ্বিতীয় সুখবরটি হলো-নতুন আরেকটি উৎসবে প্রদর্শনের জন্য নির্বাচিত হয়েছে ‘সামথিং লাইক অ্যান অটোবায়োগ্রাফি’। অস্ট্রেলিয়ার সবচেয়ে বড় ও মর্যাদাপূর্ণ চলচ্চিত্র উৎসব ‘সিডনি ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল’-এ প্রদর্শিত হবে এটি। আগামী ৫ জুন শুরু হয়ে উৎসবটি চলবে ১৬ জুন পর্যন্ত।

এতে ফারুকীর সঙ্গে ছবির অভিনেত্রী, প্রযোজকরাও অংশ নেবেন বলে আশা প্রকাশ করেছেন। দ্বিগুণ আনন্দে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকী বললেন, “ফিল্মমেকার হিসেবে এটা আমার জন্য ঈদের ডাবল আনন্দ হিসেবে এসেছে। ঈদে চরকিতে মুক্তি পেয়েছে ‘মনোগামী’, যেটা নিয়ে ‘উত্তপ্ত’ আলোচনা হচ্ছে। আমার ব্যাচেলর মুক্তি পাওয়ার পর এরকম ‘তীব্র’ প্রতিক্রিয়া দেখেছিলাম। দর্শকদের এই এঙ্গেজমেন্টে আমি খুবই আনন্দিত। তার সঙ্গে যুক্ত হলো ‘সামথিং লাইক অ্যান অটোবায়োগ্রাফি’র এই খবর। চ্যানেল ফোর যুক্তরাজ্যের প্রথম সারির টেলিভিশন।

সিডনি ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল অস্ট্রেলিয়ার গুরুত্বপূর্ণ উৎসব। আমি কৃতজ্ঞ। যারা যারা ‘অটোবায়োগ্রাফি’ দেখেননি, তাদের আমন্ত্রণ জানাই চরকিতে দেখে ফেলার।” ছবির অভিনেত্রী নুসরাত ইমরোজ তিশার মন্তব্য এরকম, “সামথিং লাইক অ্যান অটোবায়োগ্রাফি’র জন্য দর্শকদের যে ভালোবাসা পেয়েছি এবং এখনও পাচ্ছি, এটা অভিনয়শিল্পী হিসেবে আমার জন্য খুবই ইন্সপায়ারিং। কিছু কাজ মানুষের মনের ভেতরে গিয়ে স্পর্শ করে। এটা সেরকম কাজ। আমার দর্শকদের কৃতজ্ঞতা জানাই তাদের ভালোবাসার জন্য।”

অন্যদিকে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান চরকির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রেদওয়ান রনি বলেছেন, ‘আমরা সবসময় বিশ্বমানের সিনেমা ও সিরিজ নির্মাণ করার চেষ্টা করি। চ্যানেল ফোর আমাদের ছবিটি আন্তর্জাতিক দর্শকদের কাছে প্রদর্শন করার জন্য বেছে নিয়েছে, এজন্য আমরা আনন্দিত। এটা দেশের নির্মাতা ও শিল্পীদের জন্য গৌরবের। সেই সঙ্গে চরকি যে বিশ্ববাজারে ভালো অবস্থান তৈরি করছে, এটা তার প্রমাণ।’ উল্লেখ্য, ওটিটি প্ল্যাটফর্ম চরকি’র ‘মিনিস্ট্রি অব লাভ’ প্রজেক্টের প্রথম ছবি হিসেবে মুক্তি পায় ‘সামথিং লাইক অ্যান অটোবায়োগ্রাফি’। এর আগে বুসান চলচ্চিত্র উৎসবের ২৮তম আসরের প্রতিযোগিতা বিভাগে নির্বাচিত হয়েছিল এটি। এ ছাড়া মুম্বাইয়ের জিও মামি ফিল্ম ফেস্টিভ্যালেও ছবিটি দেখানো হয়েছিল।