June 24, 2024

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Tuesday, April 2nd, 2024, 4:16 pm

সুন্দরবনে মধু আহরণের মৌসুম শুরু

দেশে মধু সংগ্রহের অন্যতম প্রধান ক্ষেত্র সুন্দরবনে ২ মাসব্যাপী মধু আহরণ মৌসুম শুরু হয়েছে। যা চলবে ৩১ মে পর্যন্ত।

সোমবার (১ এপ্রিল) সুন্দরবনের বুড়িগোয়ালিনী প্রাইমারি স্কুল মাঠে মধু আহরণের মধ্যে দিয়ে মৌসুমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন সংসদ সদস্য আতাউল। এ সময় বন বিভাগের পশ্চিম বিভাগীয় বন কর্মকর্তা ড. আবু নাসের মহসিন উপস্থিত ছিলেন।

এ বছর সুন্দরবন পশ্চিম ও পূর্ব বিভাগে মধু আহরণের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ২ হাজার ৫০০ কুইন্টাল এবং মোম আহরণের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৭৫০ কুইন্টাল।

এছাড়া বিভিন্ন ফরেস্ট স্টেশন থেকে অনুমতি নিয়ে মৌয়ালরা গভীর বনে প্রবেশ করেছেন মধু সংগ্রহ করতে।

এদিকে কয়রা উপজেলার সুন্দরবন সংলগ্ন কাটকাটা, মঠবাড়ি, পাথরখালী, গড়িয়াবাড়ি, হরিহরপুর এবং সুন্দরবনের বানিয়াখালি, তেতুল তলা, ফুলতলা, সরদার ঘাট, নুয়ানি, ৪ নম্বর কয়রা, সিংগাসহ নানা স্থান থেকে পেশাদার মৌয়ালরা মধু সংগ্রহ করবেন। এছাড়া বনে এখন গরান, বাইন ও খলিশা ফুলের মধু পাওয়া যাবে।

বন বিভাগের সূত্রে জানা যায়, ২০২০-২০২১ অর্থবছরে সুন্দরবন থেকে ৫ লাখ ৮০ হাজার ২৪০ কেজি মধু ও মোম সংগ্রহ করা হয়। মধু ও মোম থেকে রাজস্ব আদায় হয় ৪৬ লাখ ৮৬ হাজার ৪১৩ টাকা।

এর মধ্যে ৪ লাখ ৪৬ হাজার ৩১৫ কেজি মধু থেকে ৩৩ লাখ ৪৭ হাজার ৩৬৩ টাকা এবং এক লাখ ৩৩ হাজার ৯০৫ কেজি মোম থেকে ১৩ লাখ ৩৯০ হাজার ৫০ টাকা রাজস্ব আয় হয়।

বন বিভাগের সূত্রে আরও জানা যায়, ২০২২ সালে সুন্দরবনের মধু থেকে রাজস্ব আয় হয় ৩৬ লাখ ৯৩ হাজার ৬০০ টাকা এবং মোম থেকে ১৫ লাখ ৩১ হাজার ২০০ টাকা। সে বছর সুন্দরবন থেকে ২ হাজার ৩২০ কুইন্টাল মধু ও ৬৯৬ কুইন্টাল মোম পাওয়া যায়।

২০২৩ সালের ১ হাজার ২২৫ কুইন্টাল মধু ও ৩৬৭ দশমিক পাঁচ কুইন্টাল মোম আহরণ করা হয়। আর এ থেকে ২৭ লাখ ৬৮ হাজার ৫০০ টাকা সরকারের রাজস্ব আসে।

বন কর্মকর্তারা জনায়, মুধ আহরণের জন্য মৌমাছি তাড়াতে অগ্নিকুণ্ড, মশাল বা অনুরূপ কোনো দাহ্য পদার্থ এবং রাসায়নিক দ্রব্যাদি ব্যবহার করা যাবে না। এছাড়া মুধ আহরণে আরও ৯টি নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এই নির্দেশনা অমান্য করেল তার বিরুদ্ধে বন আইনে কঠোর শাস্তির বিধান রয়েছে।

জানা গেছে, ১৮৬০ সাল থেকে সুন্দরবনে মধু সংগ্রহ করা হয়। বনসংলগ্ন একটি ক্ষুদ্র গোষ্ঠী বংশ পরম্পরায় মধু সংগ্রহ করে। এদের মৌয়াল বলা হয়। সুন্দরবনের সাতক্ষীরা রেঞ্জে সবচেয়ে বেশি মধু পাওয়া যায়।

—-ইউএনবি