November 27, 2021

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Thursday, October 28th, 2021, 12:10 pm

স্ত্রীকে ছুরিকাঘাতে হত্যার পর স্বামীর আত্মহত্যার চেষ্টা

ফাইল ছবি

জেলার সীতাকুণ্ডে স্ত্রীকে ছুরিকাঘাত করে হত্যার পর নিজের পেটে ছুরি ঢুকিয়ে এবং বিষপান করে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন অভিধর নামে এক ব্যক্তি। নিহত স্ত্রীর নাম যূথীকা সুত্রধর (২১)।

গতকাল বুধবার রাতে সীতাকুণ্ড পৌরসদর এলাকা প্রেমতল লোকনাথ আশ্রমের সংলগ্ন মালি বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সীতাকুণ্ড পৌরসদর কলেজ রোড প্রেমতলা লোকনাথ আশ্রম সংলগ্ন মালি বাড়ির রাম সূত্রধরের মেয়ে যূথীকা সূত্রধরের সাথে চট্টগ্রাম জেলার বাঁশখালী উপজেলার অভি সূত্রধরের সাথে (বর্তমানে পৌরসদর এলাকায় স্বর্নের দোকান ম্যানেজার) গত ২-৩ বছর আগে প্রেমের সূত্রধরে পারিবারিক অমতে বিয়ে করেন। বিয়ের কিছু দিন পর থেকে শশুর বাড়ি যাওয়াসহ নানা সমস্যা নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া-বিবাদ শুরু হয়। কিছুদিন স্বামী অভিধর অন্যত্র থেকে গত কয়েকদিন আগে আবার শশুর বাড়িতে এসে থাকা শুরু করেন।

গতকাল বুধবার দুপুরে খাওয়ার পর স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া-বিবাদ হয়। এরই ধারাবাহিকতায় রাতে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে ধারালো চুরি দিয়ে প্রথমে স্ত্রী যূথীকা ধরকে গুরুতর আহত করে। পরে নিজেই ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত হয়ে পড়েন।

দরজা বন্ধ ঘর থেকে এক পর্যায়ে কান্নার শব্দ আসলে বাড়ির লোকজন গিয়ে আহতবস্থায় দুজনকে উদ্ধার করে প্রথমে সীতাকুণ্ড স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক যূথীকা সূত্রধরকে মৃত ঘোষণা করেন এবং স্বামী অভিধরকে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্বে থাকা সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) মোহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম বলেন, ‘রাত ৯টা ৪৫ মিনিটে সীতাকুণ্ড থেকে আহতাবস্থায় এক যুবককে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ২৫ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাখেন।’

সীতাকুণ্ড মডেল থানার ওসি (তদন্ত) সুমন বনিক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘অভিযুক্ত আসামি স্বামী অভিধর চিকিৎসাধীন রয়েছেন। আমরা তাকে পুলিশি হেফাজতে রেখেছি। মূলত স্ত্রীকে হত্যার পর স্বামী নিজেই ছুরিকাঘাতে ও বিষপান করে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। আইনগত বিষয় শেষে অভিযুক্তকে আসামি করে হত্যা মামলা রুজু করা হবে।’

–ইউএনবি