November 29, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Tuesday, October 11th, 2022, 8:39 pm

স্থায়ী ক্যাম্পাসের দাবি ভিকারুননিসার ছাত্রীদের

ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের ধানমন্ডি শাখা ‘বন্ধের অপচেষ্টার’ প্রতিবাদে এবং সেখানে স্থায়ী ক্যাম্পাসের দাবিতে মঙ্গলবার ঢাকার মিরপুর সড়কে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা।

নিজস্ব প্রতিবেদক:

স্থায়ী ক্যাম্পাসের দাবিতে ধানমন্ডির রাস্তায় মানববন্ধন করেছে ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের ধানমন্ডি শাখার ছাত্রীরা। তাদের সঙ্গে আন্দোলনে অভিভাবকরাও ছিলেন। মঙ্গলবার (১১ অক্টোবর) দুপুর ১২টায় শুরু হয় এই কর্মসূচি। ভিকারুননিসার ধানমন্ডি শাখা থেকে ছাত্রীদের বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। মিরপুর রোডের আনোয়ার খান মডার্ন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সামনের সড়কের মোড়ে মানববন্ধন করে ছাত্রীরা। এসময় ছাত্রীরা ‘আমাদের দাবি মানতে হবে, স্থায়ী ক্যাম্পাস দিতে হবে’ স্লোগান দেয়। এ বিষয়ে একজন অভিভাবক বলেন, ভিকারুননিসার চারটি শাখার মধ্যে এটিই প্রথম অনুমোদিত শাখা। ভাড়া করা বাড়িতে এই প্রতিষ্ঠানের শিক্ষা কার্যক্রম চলছে। দীর্ঘদিন হওয়ায় ভবনের টেম্পার চলে গেছে। অধ্যক্ষ সেটা জানেন। কিন্তু তিনি নতুন ভবন বা স্থায়ী ক্যাম্পাসের উদ্যোগ নেননি। লস প্রজেক্ট দেখিয়ে এই শাখা এখন বন্ধের চেষ্টা করছে। সেজন্য ছাত্রী ও অভিভাবকরা রাস্তায় নেমেছে। আরেকজন অভিভাবক বলেন, সাবেক অধ্যক্ষ ফওজিয়া স্থায়ী ক্যাম্পাসের জন্য জমির বায়না করেছিলেন। কিন্তু বর্তমান অধ্যক্ষ কামরুন নাহার এসেই সেটা বাতিল করে দেন। এরপর ধানমন্ডি শাখার কয়েকজন শিক্ষককে মৌখিক নির্দেশে বদলি করা হয়।

ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের ধানমন্ডি শাখা ‘বন্ধের অপচেষ্টার’ প্রতিবাদে এবং সেখানে স্থায়ী ক্যাম্পাসের দাবিতে মঙ্গলবার ঢাকার মিরপুর সড়কে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা।

জমির বিষয়ে আমরা জেনেছি, বড় একটা কোম্পানি এরইমধ্যে বায়না করেছে। সে কারণে আমরা স্থায়ী ক্যাম্পাসের দাবিতে মানববন্ধন করছি। এ বিষয়ে ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ কামরুন নাহার বলেন, স্থায়ী ক্যাম্পাসের দাবিতে ধানমন্ডিতে মানববন্ধন হচ্ছে শুনেছি। তবে এ বিষয়ে কোনো শিক্ষক বা অভিভাবক আমাদের কিছু জানাননি। স্থায়ী ক্যাম্পাসের দাবির বিষয়ে তিনি বলেন, স্থায়ী ক্যাম্পাস সম্ভব না। আমাদের ফান্ডে স্থায়ী ক্যাম্পাস নির্মাণের জন্য এত টাকা নেই। ধানমন্ডি ক্যাম্পাসের জন্য বাড়িওয়ালার সঙ্গে দীর্ঘদিন আগে চুক্তি শেষ হলেও নতুন করে তিনি ভাড়ার জন্য চুক্তি করতে রাজি নন। সেখানে ভবন ভেঙেপড়ার ঝুঁকি রয়েছে।