June 27, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Monday, May 23rd, 2022, 7:55 pm

হার দিয়ে মৌসুম শেষ করলো বার্সেলোনা

অনলাইন ডেস্ক :

চেনা আঙিনায় নিজেদের মেলে ধরতে ব্যর্থ হলেন ফেররান তরেস, পিয়েরে-এমেরিক অবামেয়াংরা। শিরোপাশূন্য মৌসুমে বার্সেলোনার শেষটা হলো তাই হতাশায়। তাদের মাঠ থেকে দারুণ জয় নিয়ে ফিরল ভিয়ারিয়াল। এই ম্যাচ থেকে বার্সেলোনার পাওয়ার ছিল সামান্যই। লা লিগায় দ্বিতীয় স্থানে থাকা নিশ্চিত হয়েছিল আগেই। জয় দিয়ে শেষটা রাঙানোর একটা চ্যালেঞ্জ অবশ্য ছিল। সেখানে পারল না শাভি এরনান্দেসের দল। কাম্প নউয়ে রোববার রাতে লা লিগার শেষ রাউন্ডে ২-০ গোলে হেরেছে কাতালান দলটি। এই জয়ে সাতে থেকে আগামী মৌসুমে উয়েফা কনফারেন্স লিগের টিকেট নিশ্চিত হলো এবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমি-ফাইনালে খেলা ভিয়ারিয়ালের। দ্বিতীয় মিনিটে প্রথম সুযোগ পায় বার্সেলোনা। জর্দি আলবার পাসে আদামা ত্রাওরের শট লক্ষ্যে থাকেনি। একাদশ মিনিটে ফ্রেংকি ডি ইয়ংয়ের প্রচেষ্টা অল্পের জন্য বাইরে দিয়ে যায়। ২০তম মিনিটে ডি-বক্সের বাইরে থেকে সের্হিও বুসকেতসের শট উড়ে যায় ক্রসবারের একটু ওপর দিয়ে। খেলার ধারার বিপরীতে ৪১তম মিনিটে এগিয়ে যায় ভিয়ারিয়াল। দানি পারেহোর দারুণ থ্রু বল নিয়ন্ত্রণে নিয়ে বক্সে ঢুকে বাঁ পায়ের শটে গোলটি করেন স্প্যানিশ মিডফিল্ডার আলফোন্সো পেদ্রাসা। বিরতির আগে সমতা টানার সুযোগ পান তরেস। দানি আলভেসের ক্রসে স্প্যানিশ ফরোয়ার্ডের ডান পায়ের ভলি ঠেকান আর্জেন্টাইন গোলরক্ষক জেরোনিমো রুলি। দ্বিতীয়ার্ধের সপ্তম মিনিটে তরেস ফাউলের শিকার হলে প্রথমে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। তবে ঘটনাটি দাগের বাইরে হওয়ায় ভিএআরের সাহায্যে ফ্রি-কিক দেন তিনি। দুই মিনিট পর ঘুরে দাঁড়ানোর পথ আরও কঠিন হয়ে যায় স্বাগতিকদের। ডি-বক্সে বল বিপদমুক্ত করার চেষ্টায় ত্রাওরে বল তুলে দেন প্রতিপক্ষের মোই গোমেসের পায়ে। জোরাল শটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন এই স্প্যানিশ মিডফিল্ডার। এরপরই অবামেয়াংকে তুলে আনসু ফাতি ও ত্রাওরের জায়গায় উসমান দেম্বেলেকে নামান বার্সেলোনা কোচ। ৭৩তম মিনিটে দূর থেকে আলভেসের শট গোলরক্ষক ঠেকানোর পর ফাতির প্রচেষ্টা গোললাইন থেকে ফেরান এক ডিফেন্ডার। ফিরতি বলে ডি ইয়ং হেডে জালে বল পাঠালেও অফসাইডের কারণে গোল মেলেনি। একটু পর ফরাসি ফরোয়ার্ড দেম্বেলের জোরাল শট ক্রসবার ঘেঁষে বেরিয়ে যায়। বাকি সময়ে আর পরিষ্কার সুযোগ তৈরি করতে পারেনি বার্সেলোনা। মাঠ ছাড়ে তারা হারের বেদনা সঙ্গী করে। একই সময়ে হওয়া আরেক ম্যাচে আথলেতিক বিলবাওয়ের বিপক্ষে ১-০ গোলে জিতেছে সেভিয়া। রিয়াল সোসিয়েদাদের বিপক্ষে ২-১ গোলের জয় পেয়েছে আতলেতিকো মাদ্রিদ। চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদ ও বার্সেলোনার সঙ্গে এই দুই দলের আগামী মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলা নিশ্চিত হয়েছিল আগেই। ৩৮ ম্যাচে রিয়ালের পয়েন্ট ৮৬। ২১ জয় ও ১০ ড্রয়ে বার্সেলোনার ৭৩ পয়েন্ট। গত ১৪ বছরে লা লিগায় এত কম পয়েন্ট পায়নি বার্সেলোনা। ৭১ পয়েন্ট নিয়ে গতবারের চ্যাম্পিয়ন আতলেতিকো তিনে, তাদের চেয়ে ১ পয়েন্ট কম নিয়ে সেভিয়া চারে থেকে শেষ করল আসর। পাঁচ ও ছয় নম্বরে থেকে আগামী মৌসুমে ইউরোপা লিগে জায়গা করে নিয়েছে যথাক্রমে রিয়াল বেতিস ও রিয়াল সোসিয়েদাদ। লা লিগা থেকে এবার অবনমন হয়েছে গ্রানাদা, লেভান্তে ও দেপোর্তিভো আলাভেসের।