December 1, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Sunday, October 30th, 2022, 7:50 pm

হালান্ডকে ছাড়াই ম্যান সিটির জয়, লিডসের সঙ্গে পারলো না লিভারপুল

অনলাইন ডেস্ক :

দূরন্ত ফর্মে থাকা আর্লিং হালান্ডকে ছাড়াই কাল জয় নিশ্চিত করেছে ম্যানচেস্টার সিটি। কেভিন ডি ব্রুইনার দুর্দান্ত স্ট্রাইকে শনিবার লিস্টার সিটিকে ১-০ গোলে পরাজিত করে প্রিমিয়ার লিগ টেবিলের শীর্ষে উঠে এসেছে সিটিজেনরা। সিটির জয়ের দিনে হেরে গেছে লিভারপুল ও চেলসি। ঘরের মাঠ ওল্ড ট্রাফোর্ডে দীর্ঘ পাঁচ বছর পর পরাজয়ের তিক্ত স্বাদ পেয়েছে অল রেডসরা। কাল তারা স্বাগতিক সমর্থকদের সামনে লিডসের বিপক্ষে ২-১ গোলে পরাজিত হয়েছে। অন্যদিকে ব্রাইটনের কাছে ৪-১ গোলে বিধ্বস্ত হয়ে হতাশ করেছে চেলসি। দুই গোলে পিছিয়ে থেকেও শেষ পর্যন্ত বোর্নমাউথকে ৩-২ গোলে পরাজিত করে টেবিলের তৃতীয় স্থান ধরে রেখেছে টটেনহ্যাম হটস্পার। পায়ের ইনজুরির কারণে কাল কিং পাওয়ার স্টেডিয়ামে সফরকারী সিটির হয়ে মাঠে নামতে পারেননি নরওয়েজিয়ান তরুণ সেনসেশন হালান্ড। কিন্তু হালান্ডকে ছাড়াও সিটি যে জিততে পারে তা প্রমানেই যেন মুখিয়ে ছিল পুরো দল। ৪৯ মিনিটে ডি ব্রুইনার দুর্দান্ত ফ্রি-কিক ধরার সাধ্য ছিলনা লিস্টার গোলরক্ষক ড্যানি ওয়ার্ডের। ইউরি টিয়েলেমানসের শক্তিশালী ভলি কর্ণারের সাহায্যে দুর্দান্তভাবে প্রতিরোধ করে এডারসন কার্যত সিটিকেই রক্ষা করেছেন। ম্যাচ শেষে সিটি বস পেপ গার্দিওলা বলেছেন, ‘আমি এটাই কেভিনের কাছ থেকে চেয়েছিলাম। গোল ও এ্যাসিস্টে সে সবসময়ই সবাইকে ছাড়িয়ে যায়। কিন্তু এই ধরনের পরিস্থিতিতে মাঝে মাঝে দলকে টেনে তোলার দায়িত্ব কেভিনের উপরই পড়ে। এদিনও তার ব্যতিক্রম ছিলনা।’ এই জয়ে আর্সেনালকে এক পয়েন্টের ব্যবধানে পিছনে ফেলে টেবিলের শীর্ষস্থান নিশ্চিত করেছে সিটি। এদিকে ২০১৭ সালের এপ্রিলে ক্রিস্টাল প্যালেসের কাছে হারের পর গত শনিবার লিগে এ্যানফিল্ডে প্রথম পরাজয়ে লিভারপুল সিটির থেকে ১৩ পয়েন্ট পিছিয়ে গেছে। টেবিলের তলানির দ্বিতীয় দল হিসেবে কাল লিভারপুলের বিপক্ষে ম্যাচ শুরু করেছিল লিডস। ৯ ম্যাচে প্রথম জয়ে কাল তারা ১৫তম স্থানে উঠে এসেছে। ৮৯ মিনিটে ক্রিসেনসিও সামারভিলের অসাধারণ গোলে লিডসের জয় নিশ্চিত হয়। এর আগে প্রথমার্ধে রডরিগোর গোলে এগিয়ে গিয়েছিল সফরকারী লিডস। ১৪ মিনিটে মোহাম্মদ সালাহর গোলে সমতায় ফিরে লিভারপুল। এবারের মৌসুমে এনিয়ে প্রথম ১২ ম্যাচে চতুর্থ পরাজয়ের স্বাদ পেল জার্গেন ক্লপের দল। শীর্ষ চারের অবস্থান থেকে এখনো আট পয়েন্ট পিছিয়ে টেবিলের নবম স্থানে নেমে গেছে লিভারপুল। ক্লপ বলেছেন, ‘এভাবে অসামঞ্জস্যপূর্ণ ভাবে খেলতে থাকলে আমাদের পক্ষে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলা কঠিন।’ গত মাসে ব্রাইটন ছেড়ে স্টামফোর্ড ব্রীজে যোগ দেবার পর এ পর্যন্ত নয় ম্যাচে গ্র্যাহামর পটারের অধীনে ব্লুজরা অপরাজিত ছিল। বিপরীতে নতুন বস রবার্তো ডি জারবির অধীনে টানা পাঁচ ম্যাচে জিততে পারেনি সিগালসরা। কিন্তু কাল পুরো পরিসংখ্যান পাল্টে দিয়ে ব্রাইটন যেন পটারের বিপক্ষে অনেকটা প্রতিশোধ নিয়েই ছাড়লো। পূর্ব সাসেক্সেও এমেক্স কমিউনিটি স্টেডিয়ামে লিনড্রো ট্রোসার্ডের গোলে পাঁচ মিনিটে এগিয়ে গিয়েছিল স্বাগতিকরা। এরপর রুবেন লফতাস-চিক ও ট্রেভো চালোবাহর পরপর দুটি আত্মঘাতি গোলে প্রথমার্ধেই ৩-০ গোলে পিছিয়ে পড়ে চেলসি। কেই হাভার্টজের গোলে চেলসি দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে এক গোল পরিশোধ করলেও তা শেষ পর্যন্ত সান্তনার গোল হয়েই থেকেছে। পাসকাল গ্রসের ইনজুরি টাইমের গোলে বড় ব্যবধানে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে স্বাগতিক ব্রাইটন। এদিকে দিনের আরেক ম্যাচে বোর্নমাউথের বিপক্ষে টানা তৃতীয় পরাজয়ের হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে টটেনহ্যাম। কিয়েফার মুরের জোড়া গোলে ৪৯ মিনিটে ২-০ গোলে লিড পায় বোর্নমাউথ। ৫৭ মিনিটে রায়ান সেসেগনন সেট-পিস থেকে এক গোল পরিশোধ করেন। ইভান পেরিসিচের ক্রস থেকে বেন ডেভিসের হেডে ৭৩ মিনিটে সমতায় ফিরে সফরকারীরা। আরো একটি কর্ণার থেকে স্টপেজ টাইমে রডরিগো বেনটানকারের গোলে টটেনহ্যামের নাটকীয় জয় নিশ্চিত হয়। ব্রেন্টফোর্ডের সাথে পিছিয়ে পড়েও শেষ পর্যন্ত ১-১ গোলে ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়লেও রেলিগেশন জোন এড়াতে পারেনি উল্ফস। সাউদাম্পটনকে ১-০ গোলে হারিয়ে ১০ম স্থানে উঠে এসেছে ক্রিস্টাল প্যালেস। সেলহার্স্ট পার্কে জয়সূচক গোলটি করেন ওডসোনে এডুয়ার্ড। এভারটনের সাথে গোলশুন্য ড্র করে টেবিলের সপ্তম স্থানে উঠে এসেছে ফুলহ্যাম।