June 26, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Tuesday, May 24th, 2022, 8:01 pm

হৃদস্পন্দন বেড়ে গেছে আনচেলত্তির

অনলাইন ডেস্ক :

প্রথম কোচ হিসেবে ভিন্ন ক্লাবের সঙ্গে তিনবার ইউরোপিয়ান ফুটবলের সেরা ট্রফি জিতেছেন কার্লো আনচেলত্তি। এবার জিনেদিন জিদান ও বব পেইসলিকে ছাড়িয়ে প্রথম কোচ হিসেবে রেকর্ড চারটি ট্রফি জয়ের পথে এই ইতালিয়ান। চারবার চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনালের ডাগআউটে থাকলেও প্যারিসে লিভারপুলের মুখোমুখি হওয়ার আগে ‘স্নায়ুচাপে’ ভুগছেন রিয়াল মাদ্রিদের কোচ। রিয়ালকে সপ্তাহখানেক আগে লা লিগা জেতানো আনচেলত্তি গুরুত্বপূর্ণ এই ম্যাচের আগে আবেগ নিয়ন্ত্রণ করতে পারছেন না, ‘আমি অনেক ঘামছি, আমার হৃদস্পন্দনও বেড়ে গেছে। আমার জন্য এটা কঠিন প্রক্রিয়া এবং আমি কারণ ব্যাখ্যা করতে পারব না। এটা কঠিন, কারণ খেলা শুরু না হওয়া পর্যন্ত আপনি কিছুই করতে পারবেন না। কিক অফের পর সবকিছু স্বাভাবিক হয়ে যাবে। কিন্তু ম্যাচের তিন ঘণ্টা আগে কোনো ওষুধই আপনার এই অনুভূতিকে পাল্টে দিতে পারবে না, আপনাকে কেবল এর মুখোমুখি হতে হবে।’ ১৩ বারের চ্যাম্পিয়নরা এই ম্যাচের আগে বেশ উজ্জীবিত বললেন আনচেলত্তি, ‘আমাদের খেলায় আমরা কোনো ব্যতিক্রমী দক্ষতা দেখায়নি। কিন্তু প্রতিশ্রুতি ও অনুপ্রেরণার দিক দিয়ে কেউ আমাদের হারায়নি। এটা জিততে অনুপ্রেরণা ও প্রতিশ্রুতি যথেষ্ট নয়। কিন্তু ফাইনালে এটা থাকতে হবে। কেউই ফাইনাল জেতার যোগ্য নয়, কিন্তু বড় ম্যাচে আমরা যা করি সেটা দিয়ে এটা অর্জন করতে হবে, আগে নয়।’ ৬২ বছর বয়সী এই ট্যাকটিশিয়ান মনে করেন, গত আট বছরে পঞ্চম চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনালে খেলার অভিজ্ঞতা তার খেলোয়াড়দের এগিয়ে রাখছে। নিজের পঞ্চম চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনালের আগে তিনি বলেছেন, ‘খেলোয়াড়দের কেউ কেউ আমাকে শেখাতে পারে যে কীভাবে ফাইনাল খেলতে হয়, তারা আমার চেয়ে অনেক বেশি এই ধরনের ম্যাচ খেলেছে। লকার রুমের বক্তব্য আমার জন্য সহজ হতে যাচ্ছে, এমনকি তাদের কিছু না বললেও চলে। তারা জানে কীভাবে প্রস্তুতি নিতে হবে ভালোভাবে, কারণ গত কয়েক বছর ধরে তারা এসবের মধ্যে অনেকবার গেছে।’ মাদ্রিদ ক্লাবের সঙ্গে ২০১৪ সালে ইউরোপ সেরা হওয়া আনচেলত্তি খেলোয়াড়দের মানসিকতায় আশ্চর্য হয়ে যান, ‘আমাকে যেটা সবচেয়ে আশ্চর্য করে সেটা হলো এই দলের খেলোয়াড়রা অনেক বেশি সাফল্য অর্জন করলেও তারা কীভাবে এত বিনয়ী এবং এখনও এত খাটতে পারে। তারা প্রস্তুত এবং প্রতিশ্রুতিবদ্ধ, কিন্তু তারা এই মুহূর্ত সত্যিই উপভোগ করছে।’