November 26, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Wednesday, January 26th, 2022, 8:53 pm

হেইডেন ঝড়ে ফাইনালে সিডনি সিক্সার্স

অনলাইন ডেস্ক :

অস্ট্রেলিয়ার বিগ ব্যাশ লিগে ব্যাট হাতে ঝড় তুললেন এক হেইডেন। তবে তিনি ম্যাথ্যু হেইডেন নন, হেইডেন কর। অস্ট্রেলিয়ান এই ২৫ বছর বয়সী ওপেনারের ব্যাট হাতে ওঠা ঝড়ের ওপর ভর করেই বিগ ব্যাশের ফাইনালে নাম লিখে ফেলেছে সিডনি সিক্সার্স। চ্যালেঞ্জার্স ম্যাচে সিডনি সিক্সার্স মুখোমুখি হয়েছিল কোয়ালিফাইং রাউন্ডের নক আউট পর্ব থেকে উঠে আসা অ্যাডিলেইড স্ট্রাইকার্সের। জয়ের জন্য ১৬৮ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে হেইডেন কর যে টর্নেডো বইয়ে দিলেন অ্যাডিলেইড স্ট্রাইকার্সের বোলারদের ওপর, তাতেই ফাইনালে ওঠা নিশ্চিত হলো সিডনির দলটির। ইনিংস ওপেন করতে নেমে শেষ পর্যন্ত অপরাজিত ছিলেন হেইডেন কর। ৫৮ বল খেলে ৯৮ রানে অপরাজিত থেকে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন তিনি। ১০টি বাউন্ডারির সঙ্গে ২টি ছক্কার মার মারেন তিনি। অন্য ব্যাটাররা বড় কোনো অবদান রাখতে না পারলেও লেট মিডল অর্ডারে সিন অ্যাবট ২০ বলে ৪১ রান করে সিডনিকে দুর্দান্ত জয় এনে দিতে সহায়তা করেন। ১৬৮ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই জাস্টিন অ্যাভেন্ডানোর উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়ে সিডনি। এরপর জ্যাক কার্ডার আউট হন ১০ রান করে। অধিনায়ক মইসেস হেনরিক্স ১৩ রান করে পিটার সিডলের বলে বোল্ড হয়ে যান। ড্যানিয়েল ক্রিশ্চিয়ান আউট হয়ে যান মাত্র ১ রান করে। এরপরই সিন অ্যাবট জুটি বাধেন হেইডেনের সঙ্গে। ১৫৬ রান পর্যন্ত নিয়ে গিয়ে আউট হন সিন অ্যাবট। তার ২০ বলে েেকা ৪১ রানের ক্যামিও ইনিংসটিই ছিল ম্যাচের মোড় নির্ধারক। শেষ পর্যন্ত হেইডেন কর অপরাজিত থেকে ইনিংসের একেবারে শেষ বলে গিয়ে জয় এনে দেন সিডনিকে। শেষ ওভারে বেশ নাটকীয়তাই জমে উঠেছিল। প্রয়োজন ছিল ১২ রান। হ্যারি কনওয়ের করা প্রথম বলেই আউট হয়ে যান সিন অ্যাবট। পরের বলেই ১ রান নিতে পারলেও দ্বিতীয় রান নিতে গিয়ে রানআউট হয়ে যান বেন ডারসুইশ। তৃতীয় বলে গিয়ে এক রান নেন জর্ডান সিল্ক। স্ট্রাইকে দেন হেইডেন করকে। তখন ৩ বলে প্রয়োজন ১০ রান। হেইডেন কর ছক্কা মেরে বসেন চতুর্থ বলে। পঞ্চম বলে ২ রান নিলেও আহত হয়ে মাঠ ছাড়েন জর্ডান সিল্ক। শেষ বলে প্রয়োজন ২ রান। মিস ফিল্ডিংয়ের কারণে বল চলে যায় বাউন্ডারির বাইরে এবং সিডনিকে জয় এনে দেন হেইডেন। এর আগে টস জিতে ব্যাট করার জন্য অ্যাডিলেইড স্টাইকার্স অধিনায়ক পিটার সিডলকে আমন্ত্রণ জানান সিডনির অধিনায়ক মইসেস হেনরিক্স। জোনাথন ওয়েলস, ইয়ান কোকবেইন এবং ম্যাট রেনশ’র ব্যাটে ভর করে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৬৭ রান সংগ্রহ করে অ্যাডিলেইড। ৪৮ রান করেন ইয়ান কোকবেইন। ৬২ রানে অপরাজিত থাকেন জোনাথন ওয়েলস এবং ৩৬ রানে অপরাজিত থাকেন ম্যাট রেনশ।