December 2, 2021

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Tuesday, August 3rd, 2021, 8:24 pm

১৫ দিনের মধ্যে ১৮ ব্রাহামা গরুর বিষয়ে আবেদন নিষ্পত্তি করতে হবে

ফাইল ছবি

অনলাইন ডেস্ক :

আমেরিকা থেকে নিয়ে আসা ব্রাহামা জাতের ১৮টি গরুর মালিকানা দাবি করে সাদেক অ্যাগ্রোর করা আবেদন ১৫ দিনের মধ্যে নিষ্পত্তি করতে কাস্টমস কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। এ সংক্রান্ত আবেদন শুনানি বিয়ে মঙ্গলবার (৩রা আগষ্ট) হাইকোর্টের বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিমের ভার্চুয়াল একক বেঞ্চ এই আদেশ দেন। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল ও ব্যারিস্টার মেহেদী হাসান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিপুল বাগমার। শুনানি শেষে ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল বলেন, গরুগুলোর মালিক মোহাম্মদপুরের সাদেক অ্যাগ্রোর মালিক ইমরান হোসেন। তিনি গরুগুলো তাকে বুঝিয়ে দেয়ার জন্য আবেদন করেছেন। আদালত সেই আবেদন ১৫ দিনের মধ্যে নিষ্পত্তি করতে বলেছেন। এর আগে বিদেশ থেকে আসা ব্রাহামা জাতের ১৮টি গরু সাভার ডেইরি ফার্ম থেকে মুক্ত (রিলিজ) করতে হাইকোর্টে রিট করা হয়। সাদেক অ্যাগ্রোর মালিক ইমরান হোসেনের পক্ষে ব্যারিস্টার মেহেদী হাসান এ রিট দায়ের করেন। যুক্তরাষ্ট্র থেকে আমদানি করা ব্রাহামা জাতের ১৮টি গরু জব্দ করে ঢাকা কাস্টম হাউস। গরুগুলো গত ৫ জুলাই দুপুরে টার্কিশ এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আসে। বাংলাদেশে ব্রাহামা জাতের গরু আমদানির অনুমতি না থাকা এবং গরুর আমদানিকারককে না পাওয়ায় এগুলো জব্দ করা হয় বলে জানান ঢাকা কাস্টমস হাউসের ডেপুটি কমিশনার (প্রিভেন্টিভ) মোহাম্মদ আবদুস সাদেক। সূত্র জানায়, বিল অব এন্ট্রিতে সবগুলো গরুর মূল্য ধরা হয়েছে ৪০ হাজার ডলার। তবে কাস্টমস কর্মকর্তারা ধারণা করেন গরুগুলো প্রতিটির মূল্য ১২-১৫ লাখ টাকারও বেশি। ১৩ মাস থেকে ৬০ মাস বয়সী এই গরুগুলোর আমদানিকারকের জায়গায় মোহামম্দপুরের ‘সাদেক এগ্রো’র নাম লেখা হয়। তবে শাহজালাল বিমানবন্দরে গরুগুলো আসলে সেগুলোকে কেউ নিতে আসেননি। আমদানিকৃত পণ্য বা মালামাল সাধারণত বিমানবন্দরের ওয়্যারহাউজে রাখা হয়। তবে কোনো প্রাণি সেখানে রাখার ব্যবস্থা না থাকায় গরুগুলোকে সাময়িকভাবে প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের কাছে হস্তান্তর করা হয়।