December 8, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Wednesday, October 26th, 2022, 8:11 pm

২০২৩ সালে বিশ্বজুড়ে কর্মীদের বেতন কত বাড়তে পারে?

অনলাইন ডেস্ক :

করোনা মহামারির পর রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধকে কেন্দ্র করে দেশে দেশে উচ্চ মূল্যস্ফীতি দেখা দিয়েছে, যা আগামী বছর বেতন বাড়ার ক্ষেত্রে বাধা হিসেবে কাজ করতে পারে। এ বিষয়ে চালানো এক জরিপে দেখা গেছে, ২০২৩ সালে বিশ্বের ৩৭ শতাংশ দেশ কর্মীদের রিয়াল-টার্ম মজুরি বাড়াতে পারে। খবর ব্লুমবার্গের। কর্মশক্তি পরামর্শদাতা ইসিএ ইন্টারন্যাশনাল জানিয়েছে, বেতন ইস্যুতে সবচেয়ে বেশি চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে পারে ইউরোপ। যেখানে মূল বেতন কমছে ১ দশমিক ৫ শতাংশ। চলতি বছর খারাপ সময় পার করছে যুক্তরাজ্যের কর্মীরা। ২০০০ সালে জরিপ শুরু হওয়ার পর এটাই তাদের সবচেয়ে বেশি খারাপ সময়। দেশটিতে ৯ দশমিক ১ শতাংশ মূল্যস্ফীতির কারণে নোমিনাল বেতন ৩ দশমিক ৫ শতাংশ বাড়লেও রিয়াল-টার্ম বেতন কমেছে ৫ দশমিক ৬ শতাংশ। মনে করা হচ্ছে ২০২৩ সালে এখানে বেতন আরও ৪ শতাংশ কমতে পারে। যুক্তরাষ্ট্রে রিয়াল-টার্ম বেতন কমেছে ৪ দশমিক ৫ শতাংশ। তবে আগামী বছর মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে আসলে বেতন ১ শতাংশ বাড়তে পারে। তবে ২০২৩ সালে বিশ্বের শীর্ষ যে দশটি দেশ বেতন বাড়াতে পারে তার মধ্যে আটটিই এশিয়ার। এতে দেখা গেছে, রিয়েল বেতন ভারতে ৪ দশমিক ৬ শতাংশ, ভিয়েতনামে ৪ শতাংশ ও চীনে ৩ দশমিক ৮ শতাংশ বাড়তে পারে। তাছাড়া ব্রাজিলে বেতন বাড়তে পারে ৩ দশমিক ৪ শতাংশ ও সৌদি আরবে বাড়তে পারে ২ দশমিক ৩ শতাংশ। ইসিএ ইন্টারন্যাশনালের এশিয়ার আঞ্চলিক পরিচালক ড. লি কোয়ান বলেন, জরিপের তথ্য অনুযায়ী, ২০২৩ সালে বিশ্বজুড়ে কর্মীদের জন্য একটি খারাপ সময় আসতে যাচ্ছে। কারণ মাত্র এক-তৃতীয়াংশ দেশে বেতন বাড়তে পারে বলে পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে। যদিও ২০২২ সালে গড় বেতন কমেছে ৩ দশমিক ৮ শতাংশ। ইসিএ এর বেতন প্রবণতা জরিপটি ৬৪টি দেশ ও শহরের ৩৬০টিরও বেশি বহুজাতিক কোম্পানি থেকে সংগৃহীত তথ্যের ওপর ভিত্তি করে তৈরি করা হয়েছে।