June 16, 2024

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Sunday, May 19th, 2024, 7:14 pm

৩০ বছর পর ‘টার্ন টেবিল’ নির্মাণ করল লালমনিরহাট রেল বিভাগ

লালমনিরহাটে রেলের ইঞ্জিন ও কোচ ঘোরানোর টার্ন টেবিলটি দীর্ঘ ৩০ বছর পর নতুন করে নির্মাণ করেছে লালমনিরহাট রেলবিভাগ।

লালমনিরহাট রেলস্টেশনের আধা কিলোমিটার উত্তর-পূর্ব দিকে সিক লাইন এলাকায় ৯ শতক জমির উপর টার্ন টেবিলটির অবস্থান।

প্রায় ৩০ বছর আগে টার্ন টেবিলটি বিকল হলে তা ব্যবহার বন্ধ করে রেলওয়ে বিভাগ। তাই ইঞ্জিন বা কোচ ঘোরানোর জন্য ঢাকায় যেতে হতো।

এদিকে লালমনিরহাট রেলওয়ে স্টেশনের সিক লাইন এলাকায় প্রস্তুত এ টার্ন টেবিলটি উদ্বোধন হলে সময় ও অর্থ দুটোই সাশ্রয় হবে।

রেলওয়ের কর্মকর্তারা জানান, লালমনিরহাটে টার্ন টেবিল নির্মাণ করা হয়েছে। টার্ন টেবিলে ১৪ টন ওজনের একটি ব্রিজ রয়েছে। এটি এই যন্ত্রের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অংশ। এর উপরে ইঞ্জিন ও কোচ তুলে ঘোরানো হয়। স্থাপনাটির তিন ধাপে পাকা দেয়ালের সীমানাপ্রাচীর যা সুরক্ষাপ্রাচীর ও লাইন দেয়াল নামে পরিচিত। এর মেঝে আরসিসি ঢালাই দেওয়া, পানি জমলে, রয়েছে পাম্প দিয়ে নিষ্কাশনের ব্যবস্থা।

রেলওয়ে দপ্তর সূত্র জানায়, লালমনিরহাটে ১৮৬২ সালে প্রথম নির্মিত হয় টার্ন টেবিল। টেবিলটি ১৯৯৩ সালের দিকে নষ্ট হয়ে যায়। নতুন করে নির্মিত টার্ন টেবিল চালু হলে দেশের মধ্যে এটিই হবে প্রথম টার্ন টেবিল।

বিভাগীয় রেলওয়ে দপ্তরের প্রকৌশলী (ক্যারেজ অ্যান্ড ওয়াগন) তাসরুজ্জামান বাবু বলেন, ২০২৩ সালের ২৬ নভেম্বর রেলওয়ের মহাব্যবস্থাপকের (পশ্চিম) কার্যালয় থেকে লালমনিরহাটে টার্ন টেবিল নির্মাণের প্রশাসনিক অনুমোদনের চিঠি দেওয়া হয়। যার নির্মাণকাজ চলতি বছরের জানুয়ারিতে শুরু হয়ে, শেষ হয়েছে গত মার্চ মাসে। এতে ব্যয় হয়েছে ২৫ লাখ টাকা।

টার্ন টেবিল কেন দরকার এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, একটি কোচ বা ইঞ্জিনকে নির্দিষ্ট সময় অন্তর টার্ন টেবিলের উপর রেখে ঘোরানো হয়। এতে বাঁ দিকের চাকা ডান দিকে, ডান দিকের চাকা বাঁ দিকে চলে যায়। ফলে দুই পাশের চাকা সমানভাবে ক্ষয় হয়। এতে চাকার স্থায়িত্ব বাড়ে।

তিনি আরও বলেন, দেশে এই প্রথম দেশীয় যন্ত্রাংশ দিয়ে টার্ন টেবিলটি নির্মাণ করা হয়েছে। এর মাধ্যমে ইঞ্জিন ও কোচ সহজেই ঘোরানো যাবে। স্বল্প ব্যয়ে উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করে এ টার্ন টেবিলটি নির্মাণ করেছি।

তিনি বলেন, নতুন টার্ন টেবিলের কার্যকারিতা সফলভাবে যাচাই করা হয়েছে। এটি বাংলাদেশে নির্মিত প্রথম টার্ন টেবিল। চলতি মে মাসের শেষ দিকে এটি আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হবে।

উদ্বোধন করার জন্য রেলপথ মন্ত্রণালয় ও রেলওয়ের পশ্চিমাঞ্চলের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা লালমনিরহাটে আসার কথা রয়েছে।

লালমনিরহাট বিভাগীয় রেলওয়ের ব্যবস্থাপক (ডিআরএম) আবদুস সালাম বলেন, সম্পূর্ণ দেশি প্রযুক্তিতে স্বল্প সময়ের মধ্যে স্বল্প টাকা ব্যয়ে টার্ন টেবিলটি নির্মিত হয়েছে। এতে অব্যবহৃত লাইন, চাকাসহ অন্য লৌহজাত নির্মাণ উপকরণ ব্যবহার করা হয়েছে।

—–ইউএনবি