June 22, 2024

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Tuesday, May 7th, 2024, 8:39 pm

৩ দিন পর সুন্দরবনে আগুন নেভানোর ঘোষণা

খুলনা অঞ্চলের বন সংরক্ষক মিহির কুমার দো বলেছেন, অগ্নিকাণ্ডের তিন দিন পর বিশ্ব ঐতিহ্য সুন্দরবনে লাগা আগুন নিভে গেছে।

তিনি বলেন, এখন সেখানে আর আগুন বা ধোঁয়ার কোনো অস্তিত্ব নেই।

মঙ্গলবার (৭ মে) বিকাল ৪টার দিকে তিনি আগুন সম্পূর্ণ নিভে যাওয়ার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়া হয়।

মিহির কুমার দো বলেন, মঙ্গলবার সকাল থেকে সুন্দরবনে অগ্নিকাণ্ডের এলাকায় ড্রোন দিয়ে প্রতি ঘণ্টায় পর্যবেক্ষণ করা হয়েছে। সেইসঙ্গে বন বিভাগের একাধিক টিম ও ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা সার্বক্ষণিক বনের মধ্যে ঘুরে ঘুরে অনুসন্ধান করে দেখছে কোথাও কোনো ধরনের আগুন বা ধোঁয়া আছে কি না। মঙ্গলবার বিকাল সাড়ে ৩টা পর্যন্ত সুন্দরবনে আগুন বা ধোঁয়ার কোনো অস্তিত্ব পাওয়া যায়নি। এরপর বন বিভাগ ও ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা যৌথভাবে সিদ্ধান্ত নিয়ে আগুন সম্পূর্ণ নিভে যাওয়ার ঘোষণা দেওয়া হয়।

এদিকে বন অধিদপ্তরের গঠিত সাত সদস্যের তদন্ত কমিটির সভাপতি মিহির কুমার দো কমিটির সদস্যদের সঙ্গে সমন্বয় করছে।

শিগগিরই কমিটির সদস্যরা সুন্দরবনে অগ্নিকাণ্ডের এলাকা পরিদর্শন করবেন বলে জানান তিনি।

সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) কাজী মুহাম্মদ নুরুল করিম জানান, বন বিভাগের গঠিত টিমসহ তিনি নিজে অগ্নিকাণ্ডের এলাকা কয়েক দফায় ঘুরে দেখেছেন। কোথাও আগুন ও ধোঁয়া দেখতে পাননি। সুন্দরবনে আগুন সম্পূর্ণ নিভে গেছে।

সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের গঠিত তিন সদস্যের তদন্ত কমিটির প্রধান চাঁদপাই রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক (এসিএফ) রানা দেব বলেন, কমিটির সদস্যদের নিয়ে তদন্ত কাজ শুরু করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ঘটনাস্থল থেকে বিভিন্ন তথ্যউপাত্ত সংগ্রহ করা হচ্ছে। বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষের সঙ্গে কথা বলা হচ্ছে। তদন্ত শেষে প্রতিবেদন ডিএফও অফিসে জমা দেওয়া হবে।

আগুনের সূত্রপাত ও ক্ষতির পরিমাণ জানতে রবিবার সুন্দরবন পূর্ব বন বিভাগের ডিএফও তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেন।

চাঁদপাই রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক রানা দেবকে ওই কমিটির প্রধান করা হয়। কমিটিকে সাত কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

অপর দিকে সুন্দরবনে আগুনের ঘটনায় জীববৈচিত্র্যের ক্ষয়ক্ষতি নিরুপণের জন্য বন অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে সোমবার বিকালে সাত সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করা হয়।

খুলনা অঞ্চলের বন সংরক্ষক মিহির কুমার দোকে ওই কমিটির প্রধান করা হয়। কমিটিকে আগামী ১০ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

—–ইউএনবি