November 27, 2021

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Tuesday, November 9th, 2021, 3:40 am

৫০ ভাগ দর্শক ফিরছে বাংলাদেশ-পাকিস্তান সিরিজে

ফাইল ছবি

অনলাইন ডেস্ক :

মাঠে বসে খেলা দেখার অপেক্ষা শেষ হচ্ছে বাংলাদেশের ক্রিকেট অনুসারীদের। বাংলাদেশ-পাকিস্তান সিরিজ দিয়ে গ্যালারিতে ফিরতে যাচ্ছে দর্শক। সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষগুলোর চূড়ান্ত অনুমোদন এখনও না পাওয়া গেলেও ইতিবাচক সাড়া মিলেছে। আনুষ্ঠানিক অনুমতিও শিগগির মিলে যাবে বলে আশা করছে বিসিবি। পুরো গ্যালারির টিকেট অবশ্য এবার ছাড়বে না বিসিবি। ধারণক্ষমতার ৫০ শতাংশ দর্শক মাঠে প্রবেশ করতে পারবেন এই সিরিজে। টিকা নেওয়া দর্শকই কেবল ঢুকতে পারবেন মাঠে। কোভিড পরিস্থিতিতে ১০ মাস বন্ধ থাকার পর গত জানুয়ারিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজ দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফেরে বাংলাদেশে। তবে খেলা হয় দর্শকবিহীন মাঠে। এরপর মে মাসে শ্রীলঙ্কা সিরিজ, অগাস্টে অস্ট্রেলিয়া সিরিজ ও সেপ্টেম্বরে নিউ জিল্যান্ড সিরিজেও খেলা হয় শূন্য গ্যালারিতে। এ ছাড়া ঘরোয়া টুর্নামেন্টগুলোতেও মাঠে রাখা হয়নি দর্শক। এই সময়টায় কেবল গত বছর নভেম্বর-ডিসেম্বরে বঙ্গবন্ধু বিপিএলে কিছু দর্শক ছিল মাঠে। এখন দেশের কোভিড পরিস্থিতি অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে চলে আসায় মাঠে দর্শক ফেরানো হচ্ছে, বললেন বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজাম উদ্দিন চৌধুরি। “পরিস্থিতি এখন অনেকটাই ভালো, তাই মাঠে দর্শক ফেরাতে চাই আমরা। ধারণ ক্ষমতার ৫০ ভাগ দর্শক মাঠে রাখার পরিকল্পনা নিয়ে কাজ চলছে। সরকারের সবুজ সঙ্কেত পেলে চূড়ান্ত হবে। বর্তমান পরিস্থিতিতে আশা করি অনুমতি পেয়ে যাব। সংশ্লিষ্ট সব কর্তৃপক্ষ এখনও পর্যন্ত ইতিবাচক।” “৫০ ভাগ টিকেট ছাড়া হবে। টিকা নেওয়া আছে যাদের, কেবল তারাই মাঠে ঢুকতে পারবেন। বাচ্চারা যেহেতু টিকা পায়নি, তাদের জন্য এটা প্রযোজ্য হবে না। তারা আসতে পারবে। সবকিছু আমরা পাবলিকলি ঘোষণা করব।” সবশেষ গত বছরের মার্চে জিম্বাবুয়ে সিরিজে মাঠে বসে খেলা দেখেন দেশের দর্শকেরা। কোভিডের কারণে এরপরই বন্ধ হয়ে যায় সবধরনের ক্রিকেট। এবার কাউন্টারের পাশাপাশি অনলাইনেও টিকেট ছাড়া হতে পারে জানালেন বোর্ডের প্রধান নির্বাহী। “সব অপশনই আমরা রাখতে চাই। এসব কয়েকদিনের মধ্যেই চূড়ান্ত হবে।” স্বাস্থ্যবিধি মানার ক্ষেত্রে মাঠের ভেতরের ব্যবস্থাপনা ভালোভাবে সামলানো নিয়ে আলোচনা চলছে বিসিবির। প্রধান নির্বাহী এখানে দায়িত্ব দেখছেন খেলা দেখতে আসা দর্শকদেরও। “মাঠের ভেতরের ম্যানেজমেন্ট, আসন ব্যবস্থাপনায় কড়াকড়ি আসলে করা কঠিন। স্বাস্থ্যবিধি মানার জন্য যতটা প্রচার করা প্রয়োজন, মাঠের ভেতরে যাতে তারা সচেতন থাকেন, সব চেষ্টাই করা হবে। বাকিটা তো দর্শকদের নিজেদের ওপর। বর্তমান প্রেক্ষাপটে ঝুঁকি যতটা কমানো যায়, সেই চেষ্টা আমাদের থাকবে।” কোভিড পরিস্থিতিতে ক্রিকেট বিশ্বজুড়ে আর সব সিরিজের মতো এই সিরিজও আয়োজিত হবে জৈব-সুরক্ষা বলয়ে। তবে অস্ট্রেলিয়া-নিউ জিল্যান্ড সিরিজের মতো অতটা কঠোর কোভিড প্রটোকল এবার নাও থাকতে পারে বলে জানালেন নিজাম উদ্দিন চৌধুরি। “দেশের কোভিড পরিস্থিতি তো এখন ভালো। কোয়ারেন্টিনের ক্ষেত্রে সরকারি বাধ্যবাধকতাই যেমন এখন অনেক কমে গেছে। আর পাকিস্তান দলও খুব কড়াকড়ি চায় না, বরং একটু রিল্যাক্সড থাকতে চায় তারা। কোনো ঝুঁকির সঙ্গে অবশ্যই আপস করা হবে না। নিরাপদ থেকেই যতটা সম্ভব করা হবে।” চলতি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ শেষেই বাংলাদেশে আসছে পাকিস্তান দল। ১৯, ২০ ও ২২ নভেম্বর দুই দল তিনটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলবে মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে। এরপর ২৬ নভেম্বর থেকে প্রথম টেস্ট চট্টগ্রামে, ৪ ডিসেম্বর থেকে দ্বিতীয় টেস্ট মিরপুরে। এই টেস্ট সিরিজ দিয়েই আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের নতুন চক্র শুরু করবে বাংলাদেশ।