July 24, 2024

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Sunday, July 23rd, 2023, 8:28 pm

৫ কিলোমিটার ভাঙ্গাচোড়া সড়কের দূর্ভোগে ২০ হাজার মানুষ

জেলা প্রতিনিধি, মৌলভীবাজার:

মৌলভীবাজারের রাজনগর উপজেলায় ৫ কিলেমিটার সড়কের জন্য চরম দূর্ভোগে রয়েছেন কামারচাক উইনিয়ন ও টেংরা ইউনিয়নের প্রায় ২০ হাজার মানুষ। দীর্ঘদিন থেকে এ সড়কটি মেরামত না করায় সমস্যায় পড়ছেন এই দুই ইউনিয়নের সাধারন মানুষ। এমনকি মূমুর্ষ রোগী ও গর্ভবতী নারীদেরও পেতে হচ্ছে কষ্ট। মনু নদীর বালু মহালের ভারি যানবাহন চলার কারণেই সড়কটি চলাচলের অনুপযোগি হয়ে পড়েছে বলেই মনে করছে উপজেলা প্রকৌশল অধিদপ্তর ও স্থানীয় জনসাধারণ। এদিকে সড়কটি মেরামতের জন্য ১৫ কোটি টাকার একটি প্রস্থাবনা সংশ্লিষ্ট দপ্তরে প্রেরণ করা হলেও তা এখনো অনুমোদন হয়নি। যার ফলে এ সড়ক দিয়ে চলাচলে দূর্ভোগের কোন অন্ত নেই চলাচলকারীদের।

স্থানীয় ও উপজেলা প্রকৌশল অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, রাজনগর উপজেলার কামারচাক ইউনিয়ন জনবহুল একটি ইউনিয়ন। মৌলভীবাজার ও রাজনগরের সঙ্গে এ ইউনয়িনের মানুষের যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম টেংরা-তারাপাশা সড়ক। কুলাউড়া-মৌলভীবাজার সড়কের টেংরাবাজার থেকে দক্ষিন দিকে কামারচাক ইউনিয়ন। এ ইউনিয়নে রাজনগরের সীমানা পর্যন্ত প্রায় ১০ কিলোমিটার সড়ক রয়েছে। এরপর রয়েছে কমলগঞ্জ উপজেলার পতনউষাড় ইউনিয়ন। এ সড়ক দিয়েই কামারচাক ইউনিয়ন ছাড়াও টেংরা ইউনিয়নের একাংশের মানুষ যাতায়াত করে থাকেন। এছাড়াও কমলগঞ্জ উপজেলার পতনউষার, কুলাউড়া উপজেলার হাজিপুর ইউনিয়নের মানুষেরও যোগাযোগের একটি মাধ্যম। কামারচাকের তারাপাশা থেকে টেংরা পর্যন্ত ৫ কিলোমিটার সড়ক বর্তমানে খানাখন্দে ভরে গেছে। একেবারেই চলাচলের অনুপযোগি হয়ে পড়েছে। এদিকে মনু নদীর বালু মহালের বালু পরিবহনে ভারি যানবাহনের কারণে সড়কটি দ্রুতই ভেঙ্গে যাচ্ছে। নিয়ম না মেনে ভারী ট্রাক চলাচল করায় এ সড়কটি চলাচলের অনুপযোগী হয়েছে বলে সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন।

স্থানীয় তারাপাশা বাজারের ব্যবসায়ী শাহ আলম সাকিব বলেন, তারাপাশা থেকে টেংরা বাজার যেতে এখন খুব ভয় হয়। যদি গাড়ি উল্টে যাওয়ার উপক্রম হয়। পুরো সড়কেই বড় বড় গর্তে ভরা। প্রতিদিনই দূর্ঘটনা ঘটছেই। এছাড়াও সড়ক ভাঙ্গাচোড়ার অজুহাতে গাড়ির চালকরা ভাড়া বৃদ্ধি করেছেন। এতে সাধারণ মানুষ পড়েছেন দুর্ভোগে।

তারাপাশা বাজারের সিএনজি অটোরিক্সা চালক মইনুল ইসলাম বলেন, প্রতিদিন এ সড়ক ব্যবহার করে রাজনগরসহ বিভিন্ন যায়গায় যেতে হয়। কিন্তু সড়ক এতই ভাঙ্গা যে এতে প্রতিদিনই গাড়ির ক্ষতি হচ্ছে।

স্থানীয় কামারচাক ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ আতাউর রহমান বলেন, ৫ কিলোমিটার এ ভাঙ্গাচেরা সড়কের কারণে লোকজনের চলাচলে ব্যাপক সমস্যা হচ্ছে। বিশেষ করে রোগী ও গর্ভবতী নারীদের চরম দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। এলাকার মানুষের কষ্টের কথা বিবেচনা করে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ যেন দ্রুত সড়কটি মেরামতের উদ্যোগ নেয় সেই দাবি জানাচ্ছি।

এ বিষয়ে রাজনগর উপজেলা প্রকৌশলী (এলজিইডি) আকরাম হোসেন তালুকদার জানান, টেংরা তারাপাশা সড়কের রাজনগরের সীমানা পর্যন্ত ১০ কিলোমিটার সড়কের মেরামতের জন্য ১৫ কোটি টাকার প্রাক্কলিত বরাদ্দ তৈরি করে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। বরাদ্দ অনুমোদন হলেই সড়ক মেরামত কাজের টেন্ডার আহবান করা হবে। বালু পরিবহনে ভারী ট্রাক চলাচলের কারণে সড়কটি দ্রুতই ভেঙ্গে যায়।