January 19, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Wednesday, December 15th, 2021, 9:00 pm

৭-০ গোলের জয়ের পর ডে ব্রুইনে বললেন, ‘অবিশ্বাস্য খেলেছি’

অনলাইন ডেস্ক :

লিডস ইউনাইটেডের সঙ্গে কিছু হিসাব চুকানোর ব্যাপার ছিল ম্যানচেস্টার সিটির। গত মৌসুমের দুই লড়াইয়ে সিটির কাছ থেকে চার পয়েন্ট আদায় করে নিয়েছিল লিডস। পেপ গুয়ার্দিওলার দল সব বুঝিয়ে দিল কড়ায়-গন্ডায়। মার্সেলো বিয়েলসার দলকে বিধ্বস্ত করল তারা ৭-০ গোলে। জয়ের কারিগরদের একজন কেভিড ডে ব্রুইনে ম্যাচের পর বললেন, অবিশ্বাস্যরকমের ভালো খেলেছেন তারা। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে মঙ্গলবার ঘরের মাঠে অসাধারণ ফুটবল উপহার দিয়ে সিটি উড়িয়ে দেয় লিডসকে। অপ্রতিরোধ্য গতিতে ছুটতে থাকা দল ৭-০ গোলের জয়ে দেখা পায় টানা সপ্তম জয়ের। জয়ের পথে একটি মাইলফলকও অর্জন হয়ে যায়। গুয়ার্দিওলার কোচিংয়ে সিটি ৫০০ গোল স্পর্শ করে স্রেফ ২০৭ ম্যাচেই, প্রিমিয়ার লিগের কোনো দলের জন্য যা রেকর্ড। ম্যাচের অষ্টম মিনিটেই ফিল ফোডেনের গোলে এগিয়ে যাওয়া সিটিকে ত্রয়োদশ মিনিটে আরও এগিয়ে নেন জ্যাক গ্রিলিশ। প্রথমার্ধে গোল হয় আর একটিই, যেটি আসে কেভিন ডে ব্রুইনের পা থেকে। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুর দিকে সিটিকে লিড আরও বাড়ান রিয়াদ মাহরেজ। এরপর আসে ম্যাচের সম্ভবত সেরা মুহূর্তটি, প্রায় ২০ মিটার দূর থেকে দুর্দান্ত গোলায় বল জালে পাঠান ডে ব্রুইনে। চোখধাঁধানো ছন্দে থাকা সিটিকে আটকে রাখার কোনো পথই খুঁজে পায়নি লিডস। আঁটসাঁট হওয়ার চেষ্টা না করে মাঠ উন্মুক্ত করে বিয়েলসার আক্রমণের কৌশল হয়ে দাঁড়ায় বুমেরাং। আরও দুটি গোল করেন জন স্টোনস ও নাথান আকে। ফুটবল লিগে ১০১ বছরের পথচলায় লিডসের যৌথ সবচেয়ে বড় পরাজয় এটি। ১৯৩৪ সালে তারা স্টোক সিটির কাছে হারে ৮-১ গোলে, ১৯৬৬ সালে ওয়েস্টহ্যামের কাছে ও ১৯৭৯ সালে আর্সেনালের কাছে হেরে যায় ৭-০ গোলে। ১৭ ম্যাচ খেলে ৪১ পয়েন্ট নিয়ে সিটি এখন শীর্ষে, এক ম্যাচ কম খেলে ৩৭ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে লিভারপুল। দুর্দান্ত জয়ের পর ডে ব্রুইনে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করলেন প্রতিপক্ষের কৌশল গুঁড়িয়ে দিতে পারায়। সামনের পথচলার জন্যও তিনি দেখতে পাচ্ছেন প্রেরণার ছবি। আমার মনে হয়, অবিশ্বাস্যরকমের ভালো খেলেছি আমরা। বিশেষ করে ওরা যেভাবে চেপে ধরেছেৃ ওদেরকে আক্রমণ করার উপযুক্ত সময় খুঁজে বের করেছি আমরা। যখন আমরা ৩-০ বা ৪-০ গোলে এগিয়ে গেলাম, এরপর ওদের কাজ কঠিন হয়ে দাঁড়ায়। দ্বিতীয়ার্ধে ওরা আঁটসাঁট হওয়ার চেষ্টা করে, তবে আমরা গোলের অনেক সুযোগ খুঁজে নেই। সবার জন্যই আজকের ম্যাচ দুর্দান্ত ছিল। দলের বেশ কজন আগে খুব বেশি খেলতে পারেনি, কিন্তু আজকে খেলেছে এবং অবদান রেখেছে। পুরো দলের জন্যই এটা প্রেরণা জাগানিয়া।”