August 8, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Tuesday, July 19th, 2022, 9:50 pm

৮ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ মূল্যস্ফীতি, জুনে ৭.৫৬ শতাংশ

প্রতীকী ছবি

বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, ২০২১-২২ অর্থবছরের শেষ মাস অর্থাৎ জুন মাসে বাংলাদেশ আট বছরের সর্বোচ্চ ৭ দশমিক ৫৬ শতাংশ মূল্যস্ফীতি হয়েছে।

মঙ্গলবার মূল্যস্ফীতি ও জিডিপি পরিসংখ্যান পরিচালনার জাতীয় পরিসংখ্যান সংস্থা বিবিএসের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, মে মাসে দেশে মূল্যস্ফীতি বেড়ে ৭ দশমিক ৪২ শতাংশে পৌঁছায়, জুনে সূচকটি আরও শূন্য দশমিক ১৪ শতাংশ বেড়ে ৭ দশমিক ৫৬ শতাংশে পৌঁছেছে।

এর অর্থ হল, ২০২১ সালের জুন মাসে যে পণ্য বা পরিষেবার জন্য ১০০ টাকা খরচ করতে হয়েছিল, ২০২২ সালের জুনে একই পণ্য বা পরিষেবার জন্য ১০৭ দশমিক ৫৬ টাকা খরচ করতে হয়েছে।

বিবিএসের তথ্যে দেখা যায়, ২০২১-২২ অর্থবছরের শেষে গড় মুদ্রাস্ফীতির হার দাঁড়িয়েছে ৬ দশমিক ১৫ শতাংশ, যা আর্থিক লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৮৫ শতাংশ বেশি।

সরকার গত আর্থিক বছরে এটি ৫ দশমিক ৩০ শতাংশের মধ্যে রাখতে সক্ষম হয়েছিল।

২০২২ সালের জুনে খাদ্য মূল্যস্ফীতি ছিল ৮ দশমিক ৩৭ শতাংশ। মে মাসে তা ছিল ৮ দশমিক ৩০ শতাংশ। এ সময়ে খাদ্যবহির্ভূত মূল্যস্ফীতি ৬ দশমিক ০৮ শতাংশ থেকে বেড়ে ৬ দশমিক ৩৩ শতাংশে পৌঁছেছে।

বিবিএসের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ২০১১-১২ অর্থবছরে সামগ্রিক গড় মূল্যস্ফীতির হার ছিল ১০ দশমিক ৬২ শতাংশ। সে বছর খাদ্য মূল্যস্ফীতি ছিল ১০ দশমিক ৪৭ শতাংশ এবং খাদ্যবহির্ভূত মূল্যস্ফীতি ছিল ১১ দশমিক ১৫ শতাংশ।

২০১২-১৩ অর্থবছরে সামগ্রিক মূল্যস্ফীতি ৭ দশমিক ৭০ শতাংশে নেমে আসে। ওই বছর খাদ্য মূল্যস্ফীতি ছিল ৭ দশমিক ২৫ শতাংশ এবং খাদ্যবহির্ভূত মূল্যস্ফীতি ছিল ৮ দশমিক ৪৩ শতাংশ।

জুন মাসে বোরো চাল, আটা, মুগডাল, গুড়, রুই মাছ, ইলিশ, শিং জাতীয় মাছ, মাংস, ডিম ও দুধের দাম বেড়েছে। সয়াবিন, শুকনো মরিচ, পেঁয়াজ, আদা, রসুন, আলু, কাঁচা মরিচ, পেঁপে, দুধ, কাপড়, মেলামাইনের পাত্রের দামও ঊর্ধ্বগতিতে। এছাড়া এ মাসে সিমেন্ট, কেরোসিন, নারকেল তেল, সিগারেট, সাদা মরিচের দামও বেড়েছে।

—ইউএনবি