August 18, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Monday, July 4th, 2022, 8:27 pm

বিবর্ণ লিটনের পাশে অধিনায়ক

অনলাইন ডেস্ক :

বাংলাদেশের টেস্ট ও ওয়ানডে দল এখন লিটন কুমার দাসকে ছাড়া ভাবা যায় না। তবে সেই লিটনকে নিয়েই ধন্দে পড়তে হয় টি-টোয়েন্টিতে। এই সংস্করণে তাকে মনে হয় যেন ভিন্ন এক ব্যাটসম্যান, যিনি ভুগছেন আত্মবিশ্বাসের অভাবে। যদিও তার ওপর দলের বিশ্বাসের অভাব নেই। অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ যেমন আস্থার হাত রাখলেন লিটনের কাঁধে। গত বছর দেড়েকের পারফরম্যান্সে টেস্টে বাংলাদেশের সেরা ব্যাটসম্যান লিটন কুমার দাস। ওয়ানডেতেও তিনি দলের সেরা ওপেনারদের একজন। কিন্তু টি-টোয়েন্টি ব্যাটিংয়ের ভাষা ও ছন্দ এখনও বুঝে উঠতে পারছেন না স্টাইলিশ এই ব্যাটসম্যান। গত বছর ১৬টি টি-টোয়েন্টি খেলে একটি ফিফটিও করতে পারেননি তিনি। এই বছর গত মার্চে আফগানিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে ৪৪ বলে ৬০ রানের ইনিংস খেলেন। তবে ব্যর্থ হন আবার পরের ম্যাচে। এরপর এই ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের প্রথম দুই ম্যাচেও ব্যর্থ। প্রথম ম্যাচে ৯ রান করতে তিনি খেলেন ১৪ বল। দ্বিতীয় ম্যাচে রোববার আউট হন ৪ বলে ৫ রান করে। সব মিলিয়ে গত ২০ টি-টোয়েন্টিতে তার ফিফটি একটি। বাংলাদেশের হয়ে ৫০ টি-টোয়েন্টি খেলে ফেললেন তিনি। এখনও হাজার রান হয়নি, ব্যাটিং গড় ¯্রফে ১৯.৩৯। একসময় তার স্ট্রাইক রেট ছিল ১৪১, এখন তা কমে হয়েছে ১২২.৩৩। তবে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি শেষে অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ বললেন, তারা ভরসা হারাচ্ছেন না টি-টোয়েন্টির লিটনের ওপর। “পরিসংখ্যান ওরকম থাকতে পারে, পরিসংখ্যান আমি সেভাবে অনুসরণ করিনি। তবে লিটন এখনও আমাদের সেরা ব্যাটসম্যানদের একজন। আপনি অবশ্যই আপনার সেরা ব্যাটসম্যানের ওপর আস্থা রাখবেন এবং চেষ্টা করবেন যেন ছন্দে ফিরতে পারে।” “লিটন টেস্ট ও ওয়ানডেতে খুবই ভালো ব্যাট করছে, ধারাবাহিকভাবে ভালো করছে। টি-টোয়েন্টিতে হয়তো সেটা বয়ে আনতে পারছে না। তবে আমরা এখনও ওর পাশে আছি, আমাদের সেরা ব্যাটসম্যানদের একজন সে।” টি-টোয়েন্টিতে লিটনের ব্যাটিং অর্ডার বদলাতে দেখা যায় নিয়মিতই। আফগানিস্তান সিরিজে তিনি ব্যাট করেছিলেন তিন নম্বরে। ওয়েস্ট ইন্ডিজে এই সিরিজে প্রথম ম্যাচে নামানো হয় চারে, পরেরটি ওপেনিংয়ে। তবে এটিকে সমস্যা মনে করছেন না মাহমুদউল্লাহ। অধিনায়কের মতে, টি-টোয়েন্টির দাবি মেটাতে এসবের সঙ্গে মানিয়ে নিতে হবেই। “সত্যি বলতে, টি-টোয়েন্টিতে আমার মনে হয়, সবাইকে অনেক ফ্লেক্সিবল থাকতে হবে। যে কোনো ব্যাটসম্যানেরই যে কোনো জায়গায় ব্যাট করার সামর্থ্য থাকতে হবে এবং লিটনের সেটা আছে। গত বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে লিটন চার নম্বরে ব্যাট করে ভালো করল (আসলে তিন নম্বরে ব্যাট করে ৪৩ বলে ৪৪ রানের ইনিংস)।” “যেহেতু আমরা ওপেনিংয়ে এখনও ভালো করতে পারছি না বা এখনও ধারাবাহিক কাউকে পাচ্ছি না, এই জায়গায় হয়তো ঘুরিয়ে-ফিরিয়ে খেলাতে হতে পারে।”