January 21, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Wednesday, December 29th, 2021, 8:13 pm

যুক্তরাষ্ট্রে উদ্ধার হওয়া শতাব্দীপ্রাচীন টাইম ক্যাপসুল ঘিরে রহস্য

অনলাইন ডেস্ক :

প্রায় ১৩০ বছর আগের একটি তামার বাক্স। সেটা নিয়েই হইচই পড়ে গিয়েছে আমেরিকার ভার্জিনিয়া প্রদেশে। ওই প্রদেশের গভর্নর রাল্ফ নর্থহ্যাম টুইট করে জানিয়েছেন, তামার ওই বাক্সটি আদৌ কোনও সাধারণ জিনিস নয়। সেটি আসলে একটি টাইম ক্যাপসুল! বাক্সটির ভিতরে কী রয়েছে তা অবশ্য এখনো জানা যায়নি। নর্থহ্যাম জানিয়েছেন, সংরক্ষণবিদেরা বাক্সটি কিছু দিন পরে খুলবেন। তার পরেই তার রহস্যভেদ হবে। জানা যাবে, কী কী প্রাচীন জিনিস রাখা রয়েছে ওই ক্যাপসুলের ভিতরে। টাইম ক্যাপসুল হল এমন এক বাক্স যেটি মাটির গভীরে পুঁতে রাখা হয় ইচ্ছাকৃত ভাবেই। তার ভিতরে রাখা থাকে প্রতœতাত্ত্বিক গুরুত্ব রয়েছে এমন বেশ কিছু জিনিস। যাতে পরবর্তী কোনও প্রজন্ম সেই বাক্স উদ্ধার করলে, তৎকালীন ইতিহাস ও মানবসভ্যতা সম্পর্কে আধুনিক যুগের মানুষ একটা ধারণা করতে পারে। ভার্জিনিয়ার রাজধানী রিচমন্ডে এক কনফেডারেট জেনারেলের মূর্তির পাদদেশে গত মঙ্গলবার খোঁড়াখুঁড়ি চলছিল। তখনই নির্মাণকর্মীরা ওই টাইম ক্যাপসুলটি উদ্ধার করেন। শ্বেতাঙ্গ পুলিশ অফিসার ডেরেক চাওভিনের অত্যাচারে কৃষ্ণাঙ্গ যুবক জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুর পরে আমেরিকা জুড়ে শুরু হয়েছিল বর্ণবিদ্বেষ-বিরোধী আন্দোলন ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার। সেই সময়েই দাবি উঠেছিল, দাসপ্রথা ও বর্ণবিদ্বেষের প্রতীক ওই সব কনফেডারেট জেনারেলের মূর্তি অবিলম্বে ভেঙে ফেলা হোক। তার পর থেকেই বিভিন্ন প্রদেশে এই ধরনের মূর্তি ভেঙে ফেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল কিছু প্রদেশের প্রশাসন। সেই সিদ্ধান্ত মতোই গত কয়েক দিন ধরে ভাঙা হচ্ছিল রিচমন্ডের ওই মূর্তিটি। তখনই মূর্তির পাদদেশ থেকে উদ্ধার হয় তামার বাক্সটি। উত্তেজিত নর্থহ্যাম তখনই তার কয়েকটি ছবি দিয়ে টুইট করেন, ‘‘ওরা এটা খুঁজে পেয়েছে। মনে হচ্ছে, এটাই সেই টাইম ক্যাপসুল যা এতদিন ধরে খোঁজা হচ্ছিল’। এটাই প্রথম বার নয়। ভার্জিনিয়ায় গত সপ্তাহেই সন্ধান মিলেছিল মাটির গভীরে পোঁতা আর একটি টাইম ক্যাপসুলের। আবার ১৮৮৭ সালে প্রকাশিত এক খবরের কাগজের প্রতিবেদনের মাধ্যমে জানা যায়, কনফেডারেট জেনারেল রবার্ট ই লি-র মূর্তির তলায় ঠিক এই ধরনের একটি বাক্স রাখা হয়েছিল। ১৮৬১-১৮৬৫ সালের গৃহযুদ্ধের সময়ে উত্তর ভার্জিনিয়া সেনার কমান্ডার ছিলেন এই জেনারেল লি। তার মূর্তির নীচে থাকা বাক্সে রাখা হয়েছিল সেই সময়কার মুদ্রা, কিছু বোতাম, কার্তুজ ও গুলিবিদ্ধ আমেরিকান প্রেসিডেন্ট আব্রাহাম লিঙ্কনের কফিনে শোওয়া একটি দুষ্প্রাপ্য ছবি। গত সেপ্টেম্বরে লি-য়ের মূর্তিটি ভেঙে ফেলা হয়। তবে তার পাদদেশ থেকে কোনও টাইম ক্যাপসুল উদ্ধার হয়নি।