August 14, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Monday, July 4th, 2022, 9:17 pm

শেরপুরে প্রেমিকের ছুরিকাঘাতে কলেজ পড়ুয়া ছাত্রী নিহত, আহত সহোদর ও বাবা

জেলা প্রতিনিধি, শেরপুর (ঝিনাইগাতী)  :

শেরপুরের নকলায় প্রেমিকের ছুরিকাঘাতে সোহাগী আক্তার (২৪) নামে এক কলেজ পড়ুয়া ছাত্রীর মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। আজ সোমবার ভোর বেলা নকলা পৌরসভা এলাকার কায়দা-বাজারদিতে এ ঘটনা ঘটেছে। এ সময় নিহত সোহাগীর বাবা শহীদুল ইসলাম (৫২) ও সহোদর সবুজ মিয়া (১৬) আহত হয়।
নিহত সোহাগী আক্তার, কায়দা এলাকার শহিদুল ইসলামের মেয়ে এবং সরকারি হাজী জালমামুদ কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিলেন। উক্ত ঘটনার পর ঘাতক প্রেমিক আরিফুল ইসলামকে (৩০) আটক করেছে থানা পুলিশ। গ্রেফতারকৃত আরিফুল নারায়ণগঞ্জ জেলার ফতুল্লা উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়নের পূর্ব শিয়ারচর লালখাঁ গ্রামের আলী হোসেন ব্যাপারীর ছেলে।

সূত্রমতে জানা যায়, গত পাঁচ/ছয় মাস পূর্বে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে আরিফুল ইসলাম এর সাথে সোহাগীর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। পরবর্তীতে এক সময় আরিফুল নকলায় এসে সোহাগীর সঙ্গে দেখা সাক্ষাত করেন। কিন্তু আরিফুলকে দেখে সোহাগীর পছন্দ না হলে তাঁদের সম্পর্কে দূরত্ব তৈরি হয়। একপর্যায়ে সোহাগী আরিফুলের সাথে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়। এতে প্রেমিক আরিফুল ক্ষিপ্ত হয়ে গত রাতে নকলায় এসে সোহাগীর বাড়ির পার্শ্বে অবস্থায় নেয়। আজ ভোরে নিহতের বাবা শহীদুল ইসলাম বাড়ির মেইন দরজা খোলে ঘর থেকে বের হতেই আরিফুল আকষ্মিক হামলা করে এলোপাথারী ভাবে ছুরিকাঘাত করতে থাকেন। এ সময় শহীদুলের ডাক-চিৎকারে সোহাগী ও তার সহোদর ছোট ভাই সবুজ এগিয়ে এলে প্রেমিক আরিফুল তাঁদেরও ছুরিকাঘাত করেন।
সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে ঘাতক প্রেমিক আরিফুলকে গ্রেফতার করে এবং আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক সোহাগীকে মৃত ঘোষণা করেন। এ সময় শহীদুল ইসলামকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

এ ব্যাপারে নকলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুশফিকুর রহমান জানান, গ্রেফতারকৃত ঘাতক আরিফুলের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। নিহতের মরদেহ ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জেলা হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।