May 28, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Tuesday, March 1st, 2022, 7:36 pm

শৈশবের ক্লাব পার্মার সঙ্গে চুক্তির মেয়াদ বাড়ালো বুফ্ফন

অনলাইন ডেস্ক :

পেশাদার ফুটবল ক্যারিয়ার ২৭ বছরের। বয়স পেরিয়ে গেছে ৪৪। তবে এখনই অবসরের কোনো ভাবনা নেই জানলুইজি বুফ্ফনের। শৈশবের ক্লাব পার্মার সঙ্গে চুক্তির মেয়াদ বাড়িয়েছেন ইটালিয়ান এই তারকা গোলরক্ষক। সেরি বি’র দলটি সোমবার নিশ্চিত করেছে বিষয়টি। নতুন চুক্তি অনুযায়ী ২০২৪ সাল পর্যন্ত ক্লাবটিতে থাকবেন বুফ্ফন, তখন তার বয়স হবে ৪৬! সব সময়ের সেরা গোলরক্ষকদের একজন বলে বিবেচিত বুফ্ফনের ১৯৯৫ সালের নভেম্বরে ১৭ বছর বয়সে পার্মার হয়ে অভিষেক হয়। দ্রুতই দলে নিজের জায়গা পোক্ত করে নেন তিনি। অবদান রাখেন ১৯৯৮-৯৯ আসরে দলের উয়েফা কাপ ও ইটালিয়ান কাপ জয়ে। ২০০১ সালে ওই সময়ের বিশ্বের সবচেয়ে দামি গোলরক্ষক হিসেবে তিনি ইউভেন্তুসে যোগ দেন তিন কোটি ৩০ লাখ পাউন্ড ট্রান্সফার ফিতে। সেখানেই কাটান ক্যারিয়ারের বড় সময়টা। মাঝে ২০১৮-১৯ মৌসুম পিএসজিতে কাটিয়ে আবার ফেরেন তুরিনের ক্লাবটিতে। এরপর গত বছরের জুনে ফেরেন ক্যারিয়ারের প্রথম ক্লাব পার্মাতে। ইতালির হয়ে রেকর্ড ১৭৬ ম্যাচ খেলা বুফ্ফন চলতি মৌসুমে সেরি বি-তে ম্যাচ খেলেছেন ২৩ ম্যাচ। পয়েন্ট টেবিলে তার দল আছে ১৩তম স্থানে। ইউভেন্তুসের হয়ে ১১টি লিগ শিরোপা জেতেন বুফ্ফন। যার মধ্যে রয়েছে ২০০৬-০৭ মৌসুমের সেরি বি শিরোপাও। ম্যাচ-ফিক্সিং কেলেঙ্কারিতে ওই মৌসুমে সেরি আ থেকে নামিয়ে দেওয়া হয়েছিল তুরিনের ক্লাবটিকে। তা স্বত্বেও ক্লাবে থেকে যান বুফ্ফন। দলটির হয়ে তিনি আরও জেতেন ৫টি ইটালিয়ান কাপ ও ৬টি ইটালিয়ান সুপার কাপ। সর্বোচ্চ পর্যায়ে একমাত্র চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপাটাই কেবল জেতা হয়নি তার। ইউভেন্তুসের হয়ে তিনবার ইউরোপ সেরার প্রতিযোগিতাটির ফাইনালে খেলে তাকে ফিরতে হয় শূন্য হাতে। ইতালির হয়ে ২০০৬ বিশ্বকাপ জেতা বুফ্ফন জাতীয় দলে সবশেষ খেলেছেন ২০১৮ সালের মার্চে, আর্জেন্টিনার বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচে। এই মাসের শুরুর দিকে ইতালির পত্রিকা লা গাজেত্তা দেল্লো স্পোর্তকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে জাতীয় দলে ফেরার লক্ষ্যের কথা জানান তিনি। বলেন, সম্ভব হলে খেলতে চান ২০২৬ বিশ্বকাপেও। লম্বা ক্যারিয়ারে বুফ্ফন ক্লাব পর্যায়ে এখন পর্যন্ত ৯৫৩টি ম্যাচ খেলেছেন, মাঠে ছিলেন ৮৫ হাজার ২৮৬ মিনিট। ‘ক্লিন শিট’ রয়েছে ৪০৪টি, গোল হজম করেছেন ৭৯৮টি। কিছুদিন আগে ক্লাব ও জাতীয় দল মিলিয়ে ইতিহাসের প্রথম গোলরক্ষক হিসেবে তিনি স্পর্শ করেন ৫০০ ‘ক্লিন শিট’ রাখার অনন্য মাইলফলক।